শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০১

মাঝচরে নিঃসঙ্গ দাঁড়িয়ে সেতু

আব্দুস সামাদ সায়েম, সিরাজগঞ্জ

মাঝচরে নিঃসঙ্গ  দাঁড়িয়ে সেতু

সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে যমুনা নদীর ভাঙনে সংযোগ সড়ক বিলীন হওয়ায় সেতুটি বর্তমানে মাঝচরে নিঃসঙ্গ দাঁড়িয়ে আছে। বর্ষা মৌসুমে এটি ‘মরণ ফাঁদ’ হয়ে দাঁড়ায়। কয়েক বছর আগে সেতুটির সঙ্গে ধাক্কা লেগে নৌকা ডুবে নয়জন প্রাণ হারান। এ অবস্থায় নৌপথে চলাচলকারীরা দুর্ঘটনা এড়াতে আসন্ন বর্ষা মৌসুমের আগেই সেতুটি অপসারণ অথবা সংযোগ সড়ক নির্মাণের দাবি জানান। জানা যায়, ১৫-১৬ বছর আগে সওজ বিভাগ চৌহালী উপজেলার দক্ষিণাঞ্চলের বাঘুটিয়া ও খাসপুকুরিয়া ইউনিয়নের কয়েক গ্রামের মানুষের যোগাযোগের জন্য সাড়ে চার কিলোমিটার পাকা সড়ক নির্মাণ করেন। এ সড়কের মাঝখানে         ৭৫ মিটার দৈর্ঘ্যরে একটি গার্ডার সেতু তৈরি করা হয়।

২০১৪ সালের বন্যায় সাড়ে চার কিলোমিটার পাকা সড়ক নদীগর্ভে চলে গেলে ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছে সেতুটি। স্থানীয়রা জানান, এক সময়ের পাকা সড়ক এখন নৌপথে পরিণত হয়েছে। বর্ষাকালে খাসপুকুরিয়া ইউনিয়নের মিটুয়ানী থেকে বাঘুটিয়া ইউনিয়নের শম্ভুদিয়া ও এনায়েতপুর পর্যন্ত নৌ-চলাচল করে। বর্ষা মৌসুমে সেতুটি ডুবে থাকায় এ রুট দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করে নৌকাযান। চৌহালীর ইউএনও আফসানা ইয়াসমিন জানান, মিটুয়ানী এলাকায় অকেজো অবস্থায় পড়ে থাকা সেতুটি অপসারণের জন্য সওজ কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। নিলাম প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দ্রুত সেতুটি বিক্রির পর অপসারণ করা হবে। সওজ বিভাগ সিরাজগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম জানান, সেতুটি অপসারণের ব্যাপারে লিখিত আবেদন পেয়েছি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। শিগগিরই এটি অপসারণে কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর