শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ১৭:০৩

ফরিদপুরে হামলার পর এবার ঘরে দুবৃর্ত্তদের আগুন

ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরে হামলার পর এবার ঘরে দুবৃর্ত্তদের আগুন

ফরিদপুর শহরের পশ্চিম খাবাসপুর এলাকায় সিনামার কায়দায় এক যুবলীগ নেতার মেয়েকে অপহরণের চেষ্টায় বাঁধা দেওয়ার জের ধরে এক হিন্দু পরিবারকে মারধরের পর এবার ঘরে আগুন দিয়েছে দুবৃর্ত্তরা। আগুনে বাড়ীর মালামাল পুড়ে গেছে। এ ঘটনায় আতংক বিরাজ করছে হিন্দু পরিবারে। এ ঘটনায় থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। 

অভিযোগে জানা গেছে, পশ্চিম খাবাসপুর মাঝিপাড়ার বাসিন্দা স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি টিপু মাতুব্বরের এসএসসি পরীক্ষার্থী মেয়েকে গত শনিবার অপহরণের চেষ্টা চালায় স্থানীয় একদল বখাটে। এসময় তারা বোমা ফাটিয়ে অপহরণের চেষ্টা চালায়। অপহরনকারীদের বাঁধা প্রদান করে এলাকার পলাশ রায় ও তার স্ত্রী সুপ্তি রানী। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীরা পলাশ রায় ও সুপ্তি রানীকে বেদমভাবে প্রহার করে। এতে গুরুতর আহত হয় পলাশ। এ ঘটনার পর পুলিশ এক বখাটেকে আটক করে। হামলার ঘটনায় থানায় একটি মামলা করে পলাশ। এ নিয়ে প্রচন্ড ক্ষিপ্ত হয় বখাটেরা। 

গত বৃহস্পতিবার আটককৃত বখাটে ছাড়া পাবার পর পলাশকে এলাকা ছেড়ে চলে যাবার হুমকি দেয়া হয়। শুক্রবার গভীর রাতে দুবৃর্ত্তরা পলাশের ঘরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনের বিষয়টি টের পেয়ে পলাশের স্ত্রী সুপ্তি রানী চিৎকার দিলে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। পরে ফায়ার সার্ভিকের কর্মীরা দুই ঘন্টার চেষ্টা চালিয়ে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। আগুনে ঘরের বেশকিছু মালামাল পুড়ে যায়। 

পলাশ রায় জানান, বাড়ীর পাশের একটি মেয়েকে অপহরণ করতে আসে বখাটেরা। আমি ও আমার স্ত্রী বাঁধা দেওয়ায় তারা আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়। এখন আমার পরিবারসহ প্রাণে মেরে ফেলার চেষ্টায় ঘরে আগুন দেয়া হয়েছিল। এ ঘটনায় কোতয়ালী থানায় মামলা হয়েছে। 

কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম নাসিম জানায়, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ বিষয়ে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ তাফসীর


আপনার মন্তব্য