Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২১:০৮

৯৯৯ নম্বরে ফোন, ধর্ষণের হাত থেকে রক্ষা কলেজছাত্রী

অনলাইন ডেস্ক

৯৯৯ নম্বরে ফোন, ধর্ষণের হাত থেকে রক্ষা কলেজছাত্রী

জরুরি নাগরিক সেবায় ব্যবহৃত ৯৯৯ নম্বরে অভিযোগ পাওয়ার পর কিশোরগঞ্জ ভৈরবে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে হৃদয় মিয়া (২৩) নামে যুবককে আটক করেছে পুলিশ। একইসঙ্গে ধর্ষণের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছেন এক কলেজছাত্রী। সোমবারের এ ঘটনা স্থানীয়ভাবে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।

জানা যায়, সোমবার দুপুরে তরুণীর বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগ নেয় বখাটে যুবক হৃদয় মিয়া। তরুণীর ঘরে ঢুকে ভেতর থেকে দরজা আটকে ধর্ষণচেষ্টা চালায় হৃদয়। এ সময় তরুণীর চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসেন। ঢাকায় অবস্থানরত তরুণীর বড় ভাইকে ঘটনা জানান প্রতিবেশিরা। বড় ভাই বিলম্ব না করে ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে পুলিশের সহযোগিতা চান। তাৎক্ষণিক সংবাদে ভৈরব থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে যায়। এরপর বখাটে যুবক হৃদয় মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়।

স্বজনরা জানান, আটক যুবক হৃদয় মিয়া ভৈরব উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের টানকৃষ্ণনগর গ্রামের কাজল মিয়ার ছেলে। আক্রান্ত তরুণী একটি কলেজের মাধ্যমিক ২য় বর্ষের ছাত্রী। তরুণীর বাবা মারা গেছেন পাঁচ বছর আগে। তিনি মা হারিয়েছেন ছয় মাস বয়সে। দুই ভাই ও চার বোনের মধ্যে ওই তরুণী সবার ছোট। বোনদের বিয়ে হয়ে গেছে। এক ভাই থাকেন ঢাকায়। আরেক ভাই ভৈরবেই কর্মরত। বাড়িতে তরুণীকে প্রায়শই একা থাকতে হয়। স্থানীয় বখাটে হৃদয় মিয়া দীর্ঘদিন ধরে তরুণীকে উত্যক্ত করে আসছিল। এ নিয়ে অভিভাবক ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে একাধিকবার নালিশ দিলেও প্রতিকার মেলেনি। থানায় জিডি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করা হয়েছে। বেপরোয়া হৃদয় সর্বশেষ সোমবার ধর্ষণের উদ্দেশ্যে তরুণীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে। এরপর পুলিশের দ্রুত উপস্থিতির কারণে তরুণীকে রক্ষা সহজ হয়। প্রত্যন্ত অঞ্চলে ৯৯৯ কলের মাধ্যমে দ্রুত সেবা পাওয়ার এ ঘটনা প্রশংসিত হচ্ছে স্থানীয়দের মাঝে।

ভৈরব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বাহালুল খান বাহার বলেন, 'জরুরি সেবার ৯৯৯ থেকে সংবাদ পেয়ে ঘটানাস্থলে দ্রুত পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। মেয়েটির ঘর থেকে অভিযুক্ত যুবককে গ্রেফতার করে থানায় আনা হয়েছে। তরুণীর ভাই এ বিষয়ে মামলা দায়ের করেছেন।'

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম 


আপনার মন্তব্য