Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২২:০১

টেকনাফ স্থলবন্দরে মিয়ানমারের ২১০টি সিমসহ তিন রোহিঙ্গা আটক

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

টেকনাফ স্থলবন্দরে মিয়ানমারের ২১০টি সিমসহ তিন রোহিঙ্গা আটক

কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে পাচারকালে মিয়ানমারের ২১০টি সিমসহ তিনজন রোহিঙ্গাকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন ট্রলারের মাঝি (চালক) মিয়ানমার মংডু এলাকার নুরুল আলমের ছেলে নুর হাসান (২৪), টেকনাফের নয়াপাড়া মোচনী রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পের মোহাম্মদ হোসনের ছেলে মো. সলিম (২৬) ও উখিয়ার জামতলী রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে মোহাম্মদ শরীফের ছেলে মো. রবি আলম (১৯)। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে টেকনাফ স্থলবন্দরের প্রধান ফটকের নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত আনসার বাহিনীর সদস্যদের সহযোগিতায় পুলিশ তাদেরকে আটক করে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, টেকনাফ স্থলবন্দরে মিয়ানমার থেকে আসা ট্রলারে রোহিঙ্গা নাগরিকদের ব্যবহারের জন্য সিমগুলো আনা হয়েছিল। খবর পেয়ে মঙ্গলবার মিয়ানমারের ওই ট্রলারের মাঝিসহ তিনজন রোহিঙ্গা নাগরিকরা সিমসহ বের হওয়ার পথে বন্দরের নিরাপত্তাকর্মীরা আটক করে। পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে উপ-পরিদশক (এসআই) সাব্বির আহমদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই তিনজনকে আটক করেন। এ সময় তাদের কাছে তল্লাশি চালিয়ে ২১০টি মিয়ানমারের এমপিটি নামে সিমগুলো উদ্ধার করা হয়। 

ওসি প্রদীপ কুমার দাস বলেন, মিয়ানমারের থেকে সিমসহ আসা তিনজন রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। 

তিনি বলেন, টেকনাফ ও উখিয়া উপজেলায় রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে নানা ধরনের অপরাধ কর্মকাণ্ড রোধে সংশ্লিষ্ট এলাকার মুঠোফোনের নের্টওয়ার্ক থ্রি-জি ও ফোর জি বন্ধ করার পাশপাশি নেটওয়ার্কও কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে রোহিঙ্গারা নিজেদের মাঝে যোগাযোগ সক্রিয় রাখতে মিয়ানমারের সিম এনে এখানে ব্যবহার করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ ছিল। মিয়ানমারের সিম পাচারের সহজ পথ হিসেবে বেঁচে নেয় টেকনাফ স্থলবন্দরকে।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য