শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ অক্টোবর, ২০২০ ১৬:২১
আপডেট : ২৭ অক্টোবর, ২০২০ ১৬:৩১

লালমনিরহাটে লাশ নিয়ে মহাসড়কে বিক্ষোভ

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

লালমনিরহাটে লাশ নিয়ে মহাসড়কে বিক্ষোভ

লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কের কালীগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় খলিলুর রহমান (৩৪) নামের এক দিনমজুরের মরদেহ নিয়ে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী। বিক্ষোভ চলাকালে মহাসড়কে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ৪ ঘণ্টাব্যাপী লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়ক অবরোধ করেন গ্রামবাসী।

নিহত দিনমজুর খলিল মিয়া কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার ইউনিয়নের কাশিরাম গ্রামের আবদার মুন্সির ছেলে।

বিক্ষোভকারীরা জানান, উপজেলার কাশিরাম গ্রামের ফজলু মাস্টারের মেয়ে স্থানীয় উত্তর বাংলা কলেজের প্রভাষক এস তাবাসুম রায়হান মুসতাযীর তামান্না। তার দায়ের করা একটি মিথ্যা মামলায় ওই গ্রামের দিনমজুর খলিল মিয়া আদালতে যাওয়ার পথে অটোরিকশার ধাক্কায় গুরুতর আহত হন।

পরে তাকে লালমনিরহাট থেকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানেই দুইদিন চিকিৎসাধীন থেকে সোমবার মারা যান তিনি। এতে ফুসে উঠে পুরো এলাকাবাসী।

প্রভাষক তামান্নার গ্রেফতারসহ দায়ের করা সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মৃত খলিলের মরদেহ নিয়ে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদের বাড়ির ফটকের সামনে মানববন্ধন করে এবং মরদেহ লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়কে রেখে মহাসড়ক অবরোধ করেন গ্রামবাসী। পরে পুলিশ এসে অবরোধ তুলে নেওয়ার চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হয়।

অবশেষে দুপুর দেড়টার দিকে অবরোধকারী গ্রামবাসীর কয়েকজনকে নিজ বাড়িতে ডেকে নেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ। এ সময় গ্রামবাসীর দাবিগুলো শুনে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তামান্নার বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে দাখিল করা অভিযোগ আমলে নিয়ে তাকে গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

BP

আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর