শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ নভেম্বর, ২০২০ ২০:৩৬
প্রিন্ট করুন printer

ফরিদপুরে জেএমবি'র দাওয়াতি শাখার সদস্য গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

ফরিদপুরে জেএমবি'র দাওয়াতি শাখার সদস্য গ্রেফতার

ফরিদপুর কোতয়ালী থানা এলাকা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবি’র দাওয়াতি শাখার সক্রিয় সদস্য মো. নীরব হাসান রুবেল (২৭)-কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৮। গতকাল রবিবার (২২ নভেম্বর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত রুবেল ফরিদপুর সদর উপজেলার ধরি কৃষ্ণপুর গ্রামের দেলোয়ার শেখের ছেলে। 

আজ সোমবার সন্ধ্যায় র‌্যাব-৮ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, গ্রেফতারকৃত রুবেল জেএমবি’র দাওয়াতি কার্যক্রমে সম্পৃক্ত বলে স্বীকার করেছে। দাওয়াতি কাজ পরিচালনার জন্য সে ঢাকা,ফরিদপুর, রাজবাড়ী ও বরিশাল সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গিয়ে গোপন মিটিং, লিফলেট বিতরন এবং সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালনা করত। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে র‌্যাব-৮।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৫৮
প্রিন্ট করুন printer

শাহেদের ‍বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি কাল

অনলাইন ডেস্ক

শাহেদের ‍বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি কাল
রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহেদ করিম। ফাইল ছবি

রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহেদ ওরফে শাহেদ করিমের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও বিস্ফোরক মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য আগামীকাল বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেছেন আদালত। 

বুধবার সকালে সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমানের আদালতে তাকে হাজির করলে আসামি পক্ষের আইনজীবী শুনানির সময় বাড়ানোর আবেদন করে। পরে আদালত আগামীকাল দিন ধার্য করে আবারো তাকে সাতক্ষীরা কারাগারে পাঠায়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৫ জুলাই ভোরে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার শাখরা কোমরপুর এলাকা দিয়ে ভারতে পালানোর চেষ্টা করে শাহেদ করিম। বোরখা পরিহিত শাহেদকে কোমরপুর বেইলি ব্রিজের নিচ থেকে র‌্যাব-৬ এর সদস্যরা তাকে আটক করে। এসময় তার কাছে থাকা একটি অবৈধ পিস্তল, ৩ রাউন্ড গুলি, ২৩৩০ ভারতীয় রুপি, ৩টি ব্যাংকের এটিএম কার্ড ও মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। 

এ ঘটনায় র‌্যাবের ডিএডি নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে অস্ত্র ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দেবহাটা থানায়  শাহেদ করিম ও জনৈক বাচ্চু মাঝিকে আসামি করে একটি মামলা করেন। 

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৫৩
প্রিন্ট করুন printer

রাজশাহীতে চুক্তিভিত্তিক টমেটো চাষ বাড়ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহীতে চুক্তিভিত্তিক টমেটো চাষ বাড়ছে

রাজশাহীর গোদাগাড়ীকে বলা টমেটোর রাজ্য। দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি টমেটো উৎপাদন হয় বরেন্দ্রভূমি খ্যাত এই উপজেলায়। প্রায় দুই দশক ধরে গোদাগাড়ী সদর ও পদ্মার চরে টমেটোর চাষ হচ্ছে। এখানে টমেটো চাষে নীরব বিপ্লব ঘটে গেছে।

রাসায়নিক সার ছাড়াই উৎপাদিত টমেটো জেলার চাহিদা মিটিয়ে ছড়িয়ে পড়ছে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায়। আর তাদের কণ্টকাকীর্ণ পথকে আরও মসৃণ করেছে প্রাণ গ্রুপ। গোদাগাড়ীর টমেটোর রাজ্যে বাণিজ্যিকভাবে টমেটো সস, জ্যাম-জেলিসহ বিভিন্ন ভোগ্যপণ্য উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাতকরণের জন্য ফ্যাক্টরি স্থাপন করেছে প্রাণ। আর প্রাণের এই কারখানার সঙ্গে চুক্তিভিত্তিক টমেটো চাষে সুদিন ফিরেছে বরেন্দ্র অঞ্চলের কৃষকদের।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর জানায়, গোদাগাড়ীর টমেটো এখন জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখছে। রাজশাহীতে শীত মৌসুমে টমেটো উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ থাকে সাড়ে ৩ হাজার হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে কেবল গোদাগাড়ী উপজেলাতেই ২ হাজার ৯৫০ হেক্টর জমিতে টমেটো চাষ হয়। যেখান থেকে ৭০ হাজার ৮০০ মেট্রিক টন টমেটো উৎপাদন হয়। ফলে আমের পর টমেটো এই অঞ্চলে কৃষি বিপ্লব ঘটিয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে।

প্রাণের বরেন্দ্র ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার সৈয়দ মো. সারোয়ার হোসাইন জানান, এ বছর প্রাণের প্রায় ১০ হাজার চুক্তিভিত্তিক কৃষক ৮৬৭ বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করেছেন। চলতি বছর টমেটো সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ১২ হাজার টন।

এর আগে ২০১৯-২০ সালে প্রাণের ৮ হাজার ৪০০ চুক্তিভিত্তিক কৃষক প্রায় ৮০০ বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করেছিলেন এবং টমেটো সংগ্রহের পরিমাণ ছিল ৭ হাজার টন। এছাড়া ২০১৮-১৯ সালে ৭৫০ বিঘা জমি থেকে প্রাণের ৭ হাজার ৫০০ হাজার চুক্তিভিত্তিক চাষির কাছ থেকে টমেটো সংগ্রহের পরিমাণ ছিল প্রায় ৬ হাজার টন। ফলে একদিকে প্রতিবছর চুক্তিভিত্তিক টমেটো চাষে যেমন কৃষক আগ্রহ দেখাচ্ছে, তেমনি প্রাণের চাষিরা প্রতিবছর বিঘা প্রতি ফলনও পাচ্ছেন বলে জানান এই কর্মকর্তা।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৫৩
প্রিন্ট করুন printer

সিদ্ধিরগঞ্জে গুলবাহার জামে মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি:

সিদ্ধিরগঞ্জে গুলবাহার জামে মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

নাসিক সিদ্ধিরগঞ্জে গুলবাহার জামে মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের ১নং ওয়ার্ডে পাইনাদী নতুন মহল্লাস্থ আলী মাদবর ২নং সড়ক এলাকায় গুলবাহার জামে মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। 

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মসজিদের জমিদাতা হাজী মো. নাজিম উদ্দিন, নাসিক ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাজী মো. ওমর ফারুক, সাবেক কাউন্সিলর মো. আব্দুর রহিম, সমাজ সেবক হাজী সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, হাজী আনোয়ার হোসেন, মুফতী হাবিবুর রহমান, মো. আব্দুল কাদের খোকন, মো. কালাম হোসেন, মো. জালাল উদ্দিন, মোঃ শাহাবুদ্দিন হোসেন, যুবলীগ নেতা মোঃ জুম্মান সরকার, মোঃ ফজল হক, মাওলানা মোঃ দ্বীন ইসলাম, মাওলানা আতিকুর রহমান আতিক, মাওলানা মোঃ ইমরান হোসেন, মাওলানা মনির হোসেনসহ প্রমুখ। 

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:৩১
প্রিন্ট করুন printer

কাউন্সিলর সাত্তারের সাত দিনের রিমান্ড দাবি

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কাউন্সিলর সাত্তারের সাত দিনের রিমান্ড দাবি

যুবলীগ কর্মী জিল্লুর রহমান চৌধুরী ওরফে গোলাম জিলানী হত্যাকাণ্ডে গ্রেফতার কাউন্সিলর আবদুস সাত্তারের সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। তদন্ত সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এই আবেদন করে। 

বুধবার নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান পিবিআই, কুমিল্লার পুলিশ সুপার মো.মিজানুর রহমান। 
     
সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মো.মিজানুর রহমান জানান, পূর্ব শত্রুতা ও রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের জেরে গত বছরের ১১ নভেম্বর মোটরসাইকেল যোগে আসা সন্ত্রাসীরা জিল্লুরকে কুপিয়ে হত্যা করে। আমরা মামলাটির তদন্ত শুরুর পর ১০ নম্বর আসামি নুরু মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছি। সর্বশেষ প্রযুক্তির মাধ্যমে মঙ্গলবার পিবিআই পরিদর্শক মো.মতিউর রহমান ও বিপুল চন্দ্র দেবনাথের মাধ্যমে তাকে রাজধানীর শাহবাগ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর কুমিল্লায় এনে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদেই মামলার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে সাত্তার। তবে আমরা তদন্তের স্বার্থে সেগুলো এখন প্রকাশ করছি না। পর্যায়ক্রমে সব তথ্য জানানো হবে। তাকে আরও বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে বুধবার সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ঘটনার পরদিন নিহতের ভাই ইমরান হোসেন চৌধুরী সদর দক্ষিণ থানায় ২৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ১৫ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। আলোচিত এ মামলাটি প্রথমে তদন্ত করে সদর দক্ষিণ থানা পুলিশ। ২ডিসেম্বর থেকে মামলাটির তদন্ত শুরু করে পিবিআই, কুমিল্লা। 

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ১৯:০৮
প্রিন্ট করুন printer

নাটোরে বৃদ্ধের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

নাটোর প্রতিনিধি

নাটোরে বৃদ্ধের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

সদর উপজেলার ইসলামবাড়ি এলাকা থেকে শুকুর আলী (৬৫) নামে এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার সকালে খবর পেয়ে তার নিজের ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

নাটোর সদর থানার ওসি জানান, বৃদ্ধের নিজ ঘর থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করি। শুকুর আলী ইসলাবাড়ি এলাকার মৃত কাচেব আলীর ছেলে। 

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে তিনি হতাশা জনিত কারণে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর