শিরোনাম
প্রকাশ : ১৮ মার্চ, ২০২১ ১৬:১২
প্রিন্ট করুন printer

ছাত্র নির্যাতনের মামলায় মাদ্রাসা শিক্ষকের কারাদণ্ড

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

ছাত্র নির্যাতনের মামলায় মাদ্রাসা শিক্ষকের কারাদণ্ড

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মাদরাসার এক শিশু ছাত্রকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের মামলায় মঈন উদ্দিন (৪২) নামে এক মাদরাসার শিক্ষককে ছয় মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেছে আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মাসুদ পারভেজ এই রায় প্রদান করেন।

দন্ডপ্রাপ্ত মঈন উদ্দিন জেলা শহরের কলেজ পাড়ার ক্বারীমীয়া ক্বেরাতুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক। তিনি জেলার সরাইল উপজেলার আখিঁতারা গ্রামের ছাদেকুল ইসলামের ছেলে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, কলেজপাড়ার ওই মাদরাসায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার রামরাইল ইউনিয়নের রামরাইল গ্রামের আবদুল মালেক হাজারীর ৯ বছর বয়সী ছেলে মোঃ ইব্রাহিম পড়াশুনা করতো। শিক্ষক মঈন উদ্দিন ২০১৮ সালের ১১ ও ১৩ আগস্ট দফায় দফায় শিশু ইব্রাহিমকে অমানবিক শারীরিক নির্যাতন করেন এবং অবস্থা বেগতিক দেখে নিজেই তাকে চিকিৎসা করান। খবর পেয়ে ইব্রাহিমের অভিভাবকরা এসে তাকে উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

এ ঘটনায় ইব্রাহিমের মা হোসনে আরা বেগম বাদী হয়ে ২০১৮ সালের ২৯ আগষ্ট শিক্ষক মঈন উদ্দিনের বিরুদ্ধে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন।

শিক্ষক মঈন উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক তাকে ছয় মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। রায় ঘোষনার সময় শিক্ষক মঈন উদ্দিন আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এপিপি মোস্তাফিজুর রহমান। তাকে সহায়তা করেন অ্যাডভোকেট মোঃ নাছির মিয়া। আসামি পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সৈয়দ তানভীর কাউসার।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর