শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ এপ্রিল, ২০২১ ১৮:৪৫
প্রিন্ট করুন printer

শেরপুরে পুলিশের কাছে অভিযোগ দেওয়ায় প্রতিপক্ষের হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

শেরপুরে পুলিশের কাছে অভিযোগ দেওয়ায় প্রতিপক্ষের হামলা

বগুড়ার শেরপুরে পুলিশের কাছে অভিযোগ দেওয়ায় বাদী ও তার লোকজনের ওপর হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। এতে নারীসহ অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে গুরুতর তিনজনকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

রবিবার বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের শরীফ সুঘাট গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এদিকে এই অভিযোগ তদন্তে গিয়ে পুলিশের দুই কর্মকর্তার সঙ্গেও দুর্ব্যবহার করারও অভিযোগ উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে।

আহতরা হলেন- উপজেলার শরীফ সুঘাট গ্রামের মাজেদুর রহমানের ছেলে কামাল পাশা (৩৫), ভাই আলম হোসেন (৩৬) ও তার স্ত্রী লতা বেগম (২৭), রাজু আহম্মেদ (২৭) এবং তার ভাই সাগর হোসেন (২৫)।

পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ৫০ শতক জমির মালিকানা নিয়ে উপজেলার সুঘাট ইউনিয়নের শরীফ সুঘাট গ্রামের মাহবুবার রহমানের ছেলে রাজু আহম্মেদের সঙ্গে একই গ্রামের হারুন তালুকদারের ছেলে মানিক তালুকদারের বিরোধ চলছিল। একপর্যায়ে গত বৃহস্পতিবার বিবাদমান জমির দখল নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে মারপিটের ঘটনা ঘটে।

পরে উক্ত ঘটনায় রাজু আহম্মেদ বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন। আর সেই অভিযোগটি তদন্তে রবিবার দুপুরে ঘটনাস্থলে যান পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) তন্ময় বর্মন ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) শফিউর রহমান।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন প্রতিপক্ষ। এমনকি ভাড়াটে লোকজন এনে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তার সঙ্গেও দুর্ব্যবহার করার অভিযোগও উঠে তাদের বিরুদ্ধে। একপর্যায়ে পুলিশ ঘটনাস্থল ত্যাগ করার পরপরই প্রতিপক্ষের লোকজন রাজু আহম্মেদ ও তার পরিবারের ওপর হামলা চালায়। একইসঙ্গে তাদের মারধর করে বসতবাড়ির একটি ঘরে আটকে রাখেন। পরে পুলিশ এই খবর পেয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে দেন বলে জানান তারা।

বগুড়ার শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তন্ময় বর্মন জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত ও স্বাভাবিক রয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা নেওয়া হবে। পাশাপাশি তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর