শিরোনাম
প্রকাশ : ২ মে, ২০২১ ০১:২০
প্রিন্ট করুন printer

দুষ্টুমির শাস্তি দিতে শিশুকে গরুর সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

নরসিংদী প্রতিনিধি:

দুষ্টুমির শাস্তি দিতে শিশুকে গরুর সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

নরসিংদীর শিবপুরে দুষ্টুমির শাস্তি দিতে ছয় বছরের এক শিশুকে গরুর সঙ্গে বেঁধে পিচঢালা সড়কে টেনে-হিঁচড়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে চাচাতো মামার বিরুদ্ধে। এতে শিশুটির শরীরে বিভিন্ন স্থানে ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। আহত শিশুটিকে শিবপুর উপজেলা স্ব্যাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। 

শনিবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ভাইরাল হয়। পরে শিবপুর থানা পুলিশ ও ইউএনও শিশুটির খোঁজ খবর নেয়ার পাশাপাশি জরুরি ওষুধপত্র ও খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন। এদিকে এই ঘটনার বিচার দাবি করে শিবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন শিশুটির মা নাসরিন বেগম।

আহত নামজুল (৬) শিবপুর উপজেলার মাছিমপুর ইউনিয়নের মিয়ারগাঁও গ্রামের মৃত আলম মিয়ার ছেলে। 

আহত শিশুর পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত দুই বছর আগে আহত শিশু নাজমুলের বাবা মারা যায়। এরপর থেকে তার মা নাসরিন বেগম বাবার বাড়ী মিয়ারগাঁও গ্রামে থাকেন। শুক্রবার বিকেলে শিশু নাজমুল বাড়ির পাশে একটি জমিতে খেলছিল। এসময় অতিরিক্ত দুষ্টুমি করার কারণে শিশুটির চাচাতো মামা শওকত আলী শিশু নাজমুলকে দুই হাত বেঁধে গরুর সাথে বেঁধে দেয়। পরে গরু শিশুটিকে নিয়ে দৌঁড় দেয়। নাজমুল রাস্তায় পড়ে যায়। তখন গরু তাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায়। এতে শিশুটির বুকের নিচে ও পেটসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। পরে শনিবার  দুপুরে শিশুটিকে নিয়ে শিবপুর হাসপাতালে আসে তার মা ও বোন। এসময় স্বপন নামে স্থানীয় একজন বিষয়টি ফেসবুকে লাইভ করে। এরই মধ্যে বিষয়টি ভাইরাল হয়। পরে সন্ধ্যার আহত শিশুর মা নাসরিন শিবপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।  

নাজমুলের ফুফাতো বোন সুমি আক্তারের বলেন, একটা শিশুর সাথে কেউ এমন আচরণ করতে পারে? আমরা এটার বিচার চাই। এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

শিবপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ কবিরুল ইসলাম বলেন, এটা নিয়ে পুলিশ কাজ করছে। তাছাড়া ছেলেটি অসহায়। এই বিবেচনায় তাকে সরকারের পক্ষ থেকে খাদ্য সামগ্রীসহ চিকিৎসার ব্যয়ভার আমি নিয়েছি।  
      
এ ব্যাপারে শিবপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন বলেন, অভিযুক্ত শওকত আলী শিশুটির মায়ের চাচাতো ভাই। বিষয়টি যে ভাবে ভাইরাল হয়েছে বাস্থবতা একটু ভিন্ন। ঘটনার পর পরই তদন্ত শুরু করে পুলিশ। 

তিনি জানায়, ঘটনার সময় উপস্থিত লোকজনের ভাষ্য মতে, শিশুটির মামা ৪-৫টি গরু নিয়ে বাড়ি যাচ্ছিল। এসময় শিশুটি একটি গরু নিতে চায়। ওই সময় শিশুটির মামা তার হাতে একটি বাছুর গরু দেয়। হঠাৎ বাছুর গরুটি লাফিয়ে আরেকটি গরুর উপরে উঠে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় গুরুটি দৌড় দিলে শিশুটি সড়কে পড়ে যায়। শরীরের বিভিন্ন স্থানে ব্যাথা পায়। 

(ওসি) আরও বলেন, বিষয়টি মানবিক। তদন্ত চলমান। তাই তদন্ত করে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 

এই বিভাগের আরও খবর