শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ জুন, ২০২১ ১৯:১১
প্রিন্ট করুন printer

রৌমারীতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

রৌমারীতে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ
ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম। পাশে কাটা আম গাছ।
Google News

কুড়িগ্রামের রৌমারীতে দরপত্র ছাড়াই সরকারি জমির গাছ কেটে নিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম। সরকারের কোনো নিয়মনীতি না মেনে তিনি এসব গাছ কেটেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার দুপুরের দিকে উপজেলার দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের পাশে পাগলার মাজার সংলগ্ন সরকারি জমির দুইটি আম গাছ ও একটি কদম গাছ কাটার ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলার দাঁতভাঙ্গা বাজার সংলগ্ন ইউনিয়ন ভূমি অফিসটির অবস্থান। ইটের প্রাচীরবেষ্টিত চত্বর। প্রায় ১২ বিঘা জায়গা জুড়েই রয়েছে বেশকিছু পুরানো ও দামি বনজ ও ফলদ গাছ। আর উত্তর-পশ্চিম কোণে অবস্থিত পাগলা মাজার ও হাফিজিয়া মাদরাসার সামনেই স্তুপ করে রাখা হয়েছে কিছু কাটা আম গাছের ডালপালা। শ্রমিকরা গাছ কাটার কাজ করছেন।

গাছকাটা শ্রমিক নঈম মিয়া বলেন, আমরা কিছু জানি না। চেয়ারম্যান রেজাউল করিমের নির্দেশে আমরা সরকারি গাছগুলো কাটছি।

স্থানীয় মোবাইল ব্যবসায়ী আব্দুস সালাম, হোটেল ব্যবসায়ী আবেদ আলী, শফিক মিয়া, হাবিল আলীসহ আরো অনেকেই বলেন, কয়েকজন শ্রমিক দাঁতভাঙ্গা ভূমি অফিসের সরকারি গাছগুলো কাটছেন। তবে শ্রমিকদের কাছ থেকে শুনেছি ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশেই গাছগুলো কাটা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে দাঁতভাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান এসএম রেজাউল করিম গাছকাটার কথা স্বীকার করে বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সবকিছুই জানেন। বিশেষ করে ইউএনও স্যারের নির্দেশেই গাছগুলো কাটা হয়েছে।

তবে রৌমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আল ইমরান বলেন, সরকারি জমির গাছ কাটার বিষয়ে চেয়ারম্যানকে কোনো অনুমতি দেওয়া হয়নি। তিনি গাছ কাটার বিষয়টি সরেজমিনে খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বস্ত করেন।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর