শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ জুন, ২০২১ ১৭:১২
প্রিন্ট করুন printer

দুপচাঁচিয়ায় কাঁচা সড়কে জনদুর্ভোগ, ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

দুপচাঁচিয়ায় কাঁচা সড়কে জনদুর্ভোগ, ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ
Google News

বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার জিয়ানগর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের বিশা থেকে মর্তুজাপুর পর্যন্ত কাঁচা সড়কটির বেহাল দশা। একটু বৃষ্টি নামলেই সড়কটিতে পানি জমে কর্দমাক্ত অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। ফলে জনদুর্ভোগ বেড়েছে। সড়কটির সংস্কারের দাবি জানিয়ে সোমবার সকালে গ্রামের যুব সমাজ কর্দমাক্ত সড়কে ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ জানিয়েছে।

বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলার জিয়ানগরের বিশা থেকে মর্তুজাপুর ৩ কিলোমিটার সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি সড়ক। এই সড়ক দিয়ে জিয়ানগরের মহিষমুন্ডা, হেরুঞ্জ, পারলা, মাধাইমুড়ি, বারাদিঘী গ্রামের সাধারণ মানুষ যাতায়াত করে থাকে। দীর্ঘদিনেও ওই ৩ কিলোমিটার কাঁচা সড়কটি পাকা না হওয়ায় এই বর্ষা মৌসুমে একটু বৃষ্টি হলেই সড়কটি কর্দমাক্ত হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ছে। এতে মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। দুর্ভোগের শিকার গ্রামের যুব সমাজ সড়কটিতে ধানের চারা রোপণ করে প্রতিবাদ জানিয়েছে। তারা দ্রুত ওই সড়কটি সংস্কারের দাবিও জানিয়েছে। তাছাড়া এই এলাকাটির অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি কৃষি। কৃষি নির্ভর এই এলাকার কৃষকরা তাদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। সহজে কৃষিপণ্য পরিবহন করা যায় না।

দুপচাঁচিয়া উপজেলার জিয়ানগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হাকিম তালুকদার জানান, বিশা থেকে মর্তুজাপুর পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার সড়কটি স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের। দীর্ঘদিন সড়কটি সংস্কারের জন্য উপজেলা প্রকৌশলী অফিসে ধর্ণা ধরে ব্যর্থ হয়েছেন। অবশেষে তিনি নিজেই সড়কটি মর্তুজাপুর থেকে আরসিসি করণ ও বিশা থেকে ইটের এইচবিবি করণের প্রকল্প গ্রহণ করেছেন। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে এই কাজ শুরু করবেন।

বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলা প্রকৌশলী রবিউল আলম জানান, সড়কটি স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের হলেও তা এখনো তালিকাভুক্ত না হওয়ায় সড়কটি কার্পেটিং এ উন্নয়ন করা সম্ভব হয়নি। তবে ওই সড়কটি তালিকাভুক্ত করার প্রচেষ্টা চলছে। তালিকা ভুক্ত হলেই সড়কটি কার্পেটিং উন্নয়ন করা হবে।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

এই বিভাগের আরও খবর