শিরোনাম
প্রকাশ : ৫ আগস্ট, ২০২১ ১৩:৩৭
প্রিন্ট করুন printer

লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা
Google News

লক্ষ্মীপুরের বশিকপুরে আওয়ামী লীগ নেতা হারুনুর রশিদকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় চন্দ্রগঞ্জ থানায় অজ্ঞাতনামা ৬-৭ জনকে আসামি করে নিহতের পরিবার মামলা দায়ের করেছে।

এর আগে বুধবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামে চায়ের দোকানে আড্ডারত অবস্থায় ৪-৫ জন তার উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা নেয়ার পথে রাতেই মারা যান তিনি। তার মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। নিহত হারুন স্থানীয় ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মৃত হোসেন আহমদের ছেলে।

পুলিশ ও স্বজনরা জানায়, স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা হারুন তার বাড়ির পাশে চায়ের দোকানে বসে খেলা দেখছিলেন। হঠাৎ সিএনজিযোগে ৪-৫ জনের সন্ত্রাসী দল এসে তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে তার দুই হাতের কব্জি, পা ও মাথা রক্তাক্ত জখম করে। আতঙ্ক ছড়াতে কয়েকটি ফাঁকা গুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটানো হয় বলে জানান স্থানীয়রা। পরে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ও পরে লক্ষ্মীপুর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এরপর অবস্থার অবনতিতে রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। পরে কুমিল্লার বিশ্বরোড এলাকায় পৌঁছালে মারা যান তিনি। এদিকে এ হামলার সুনির্দিষ্ট কোন কারণ এখনো পর্যন্ত জানাতে পারেনি কেউ। 

আজ সকালে ঘটনাস্থল এলাকায় গিয়ে দেখা যায় দোকানের আশে পাশে বেশ কয়েকটি গুলির চিহ্ন রয়েছে। দোকানের আঙ্গিনা রয়েছে এখনো রক্তাক্ত। এসময় নিহতের স্বজনরা আশেপাশের এলাকায় বারবার কান্নায় ভেঙ্গে পড়তে দেখা গেছে। স্বজনরা হত্যাকাণ্ডের সুনির্দিষ্ট কারণ জানাতে না পারলেও ঘটনার বিচার দাবি করেন। এদিকে এ ঘটনায় স্থানীয় চন্দ্রগঞ্জ থানায় অজ্ঞাতনামা ৬-৭ জনকে আসামি করে মামলা করেন নিহতের ছেলে আল আমিন হৃদয়। অন্যদিকে এ হত্যাকাণ্ডকে রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড দাবী করে বিএনপি-জামায়াতকে দায়ী করছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন বলেন, আওয়ামী লীগ নেতার উপর সন্ত্রাসী হামলায় বিএনপি জামায়াত জড়িত। তারা শান্তিপূর্ণ পরিবেশকে আবারও নষ্ট করতে চাইছে। জড়িতদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেন এ নেতা।

তবে বিএনপি তা অস্বীকার করে আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দল বলছেন। জেলা বিএনপি’র সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাসিবুর রহমান বলেন, আওয়ামী লীগের অভিযোগ প্রত্যাখান করেছে বিএনপি। নিজেদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে দাবী করেন এ নেতা।

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান বলেন, সিএনজিযোগে এসে ৪/৫ জন দুর্বৃত্ত হারুনের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। পরে সে মারা যায়। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ঘটনার তদন্তসহ জড়িতদের ধরতে পুলিশ কাজ করছে বলে জানান জেলা পুলিশ প্রধান।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 

এই বিভাগের আরও খবর