শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ জুন, ২০১৯ ১৯:১৫

ওপেনারদের ফর্মে ফেরার আশায় নিউজিল্যান্ড কোচ

অনলাইন ডেস্ক

ওপেনারদের ফর্মে ফেরার আশায় নিউজিল্যান্ড কোচ
ফাইল ছবি

নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনিং ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল ও কলিন মুনরো বিশ্বকাপে নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করতে ব্যর্থ হয়েচ্ছেন। তবে তারা শিগগিরই ফর্ম খুঁজে পাবেন বলে আশাবাদী দলীয় কোচ গ্যারি স্টিড।

বর্তমানে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে থাকা অপরাজিত কিউইরা বুধবার এজবাস্টনে পাকিস্তানের মোকাবেলা করবে। এর পর গ্রুপ পর্বের শেষ দুই ম্যাচে টুর্নামেন্টের দুই ফেভারিট অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের মোকাবেলা করবে নিউজিল্যান্ড।

বিশ্বকাপের শুরুতে দলের হয়ে দুর্দান্ত সুচনা করলেও এরপর ইংল্যান্ডের মাটিতে ব্যাট হাতে সংগ্রাম করতে হয়েছে গাপটিল ও মুনরোকে। এ সময় অসাধারণ পারফরমেন্স দিয়ে নিউজিল্যান্ডকে টেনে নিয়ে গেছেন কেন উইলিয়ামসন ও রস টেইলর।

ডানহাতি গাপটিল নিউজিল্যান্ডের একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে ওডিআই ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন। অথচ তিনিই এই আসরে দুইবার ফিরে গেছেন শূন্য হাতে। টুর্নামেন্টের ৫ ইনিংসে ব্যাট করে এ পর্যন্ত তার সংগ্রহ ১৩৩ রান। এর মধ্যে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচে অপরাজিত ৭৩ রান করেছেন তিনি।

এ পর্যন্ত মুনরো করেছেন ১১৩ রান। যার মধ্যে ৫৮ রান করেছেন কার্ডিফে দিমুথ কারুনারত্নের দলের বিপক্ষে। লঙ্কানদের বিপক্ষে জয়ের জন্য ১৩৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ওই ম্যাচে গাপটিলের বিধ্বংসী ব্যাটিং কিউইদের ১৬.১ ওভারে পৌঁছে দেয় জয়ের বন্দরে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে আসন্ন ম্যাচ উপলক্ষে স্টিড বার্মিংহামে সাংবাদিকদের বলেন, ‘যখন কেউ রান খরায় ভোগে তখন যে কোনো দলই তাদের সময় দেয়। এটিই হচ্ছে ক্রিকেট। বহু ম্যাচেই মার্টিন ও কলিন আমাদের জন্য যথেষ্ঠ করেছে। আশা করব পরের ম্যাচেই তারা ছন্দ ফিরে পাবে। তারা যদি সেটি ফিরে পান, তাহলে কেন ও টেইলরসহ পরবর্তী ব্যাটসম্যানদের জন্য বাকী কাজটা সহজ হয়ে আসবে।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়লাভ করতে পারলেই অষ্টম বারের মত বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে খেলা নিশ্চিত হয়ে যাবে নিউজিল্যান্ডের জন্য। প্রতিদ্বন্দ্বী দলগুলোর চেয়ে এগিয়ে থাকার পরও একেবারেই শঙ্কামুক্ত নন কিউই কোচ। কারণ স্টিড জানেন, পরিস্থিতি যদি তাদের অনুকুলে না থাকে তাহলে বর্তমান অবস্থানে থাকার পরও শেষ চার থেকে ছিটকে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে কালোটুপিধারীদের।

স্টিড বলেন, ‘তার দল এখন ভাল অবস্থানে রয়েছে।’ তার মতে বাংলাদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেই তার দল এই অবস্থানটি নিশ্চিত করেছে। 

কিউই কোচ বলেন, ‘আমদের তিনটি ম্যাচ ছিল একেবারেই ক্লোজ। কিন্তু শেষ মুহুর্তে এসে আমার মনে হয় সেগুলো আলোচনায় আসবে। কারণ আমাদের ওই কঠিন পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে হয়েছে। তবে এই মুহুর্তে আমরা চাই ধারাবাহিকতা রক্ষা করে খেলতে।’

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য