শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:০২
আপডেট : ২২ অক্টোবর, ২০১৯ ১৭:১৪
প্রিন্ট করুন printer

চট্টগ্রাম নগরে নতুন করে ডেঙ্গু আতঙ্ক

রেজা মুজাম্মেল, চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রাম নগরে নতুন করে ডেঙ্গু আতঙ্ক

চট্টগ্রাম নগরের পাহাড়তলী ওয়ার্ডের বিশ্ব কলোনী ও ফয়েস লেক এলাকা থেকে সংগ্রহ করা স্যাম্পলে মিলেছে এডিশ মশার লার্ভা ও পিউপির অস্তিত্বও। এ কারণে চট্টগ্রাম নগরে নতুন করে ডেঙ্গুর ‘আতঙ্ক’ ছড়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

তবে এডিশ মশার অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়ার বিষয়টি জানিয়ে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে চিঠি দিয়েছেন চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন।  অন্যদিকে, দুই এলাকায় মশার উপদ্রব হঠাৎ করে বেড়ে যাওয়ায় বাসিন্দারা ডেঙ্গু আক্রান্তের ভয়ে সময় পার করছেন বলে জানা যায়।

সিভিল সার্জনের চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, ‘পাহাড়তলী ওয়ার্ডের ফয়েস লেকের আব্দুল হামিদ সড়কে ৫ নম্বর রোডের কয়েকটি এলাকায় সরেজমিন পরিদর্শন করে স্বাস্থ্য বিভাগীয় কার্যালয়ের একটি দল ও কীট তত্ত্ববিদরা মশক সার্ভে করেন। এ সময় সেখানে এডিশ মশার লার্ভা ও পিউপি পাওয়া যায়। এছাড়াও ওয়ার্ডের বিশ্ব কলোনী এলাকাতেও সম্প্রতি ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। এখানেও মিলেছে এডিশ মশার লার্ভা ও পিউপি। আক্রান্তদের অধিকাংশই এলাকার পার্শ্ববর্তী ইউএসটিসি ও ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে।’  

প্রসঙ্গত, গত ৬ অক্টোবর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারান ফয়েস লেক এলাকার বাসিন্দা সুনীল বৈদ্যের ১৯ বছরের মেয়ে সুমি বৈদ্য। তিনি এ বছর উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেছেন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ছয় জনের মৃত্যু হলো।  

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, ‘নগরের পাহাড়তলী ওয়ার্ডের বিশ্ব কলোনী ও ফয়েস লেক এলাকায় নতুন করে অনেকে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। দুই এলাকায় এডিশ মশার  লার্ভা ও পিউপির অস্তিত্বও মিলেছে। এখানে প্রতিদিন কেউ না কেউ আক্রান্ত হচ্ছে। বিষয়টি জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, সিটি কর্পোরেশনসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘ডেঙ্গুর প্রকোপ আবারও বেড়ে যাওয়ায় পাহাড়তলী ওয়ার্ডের প্রতিটি এলাকায় প্রতিদিন মশা মারার ওষুধ ছিটানো হচ্ছে। ডেঙ্গুর প্রকোপ কমানো কারও একার পক্ষে সম্ভব নয়। এজন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে।’   

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৫:৪৬
আপডেট : ২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৭:০৫
প্রিন্ট করুন printer

গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৮১ ডেঙ্গু রোগী

অনলাইন প্রতিবেদক

গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি ৮১ ডেঙ্গু রোগী
ফাইল ছবি

রাজধানীসহ সারাদেশে এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ধীরে ধীরে কমলেও এখনও এ রোগের প্রাদুর্ভাব রয়ে গেছে। সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশের সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ৮১ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছেন।

সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টারের সহকারী পরিচালক ডা. আয়েশা আক্তার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সারাদেশের সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে রবিবার সকাল ৮টা থেকে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় মোট ৮১ জন নতুন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে রাজধানীর হাসপাতালে ৪৫ জন ও ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ৩৬ জন ভর্তি হয়েছেন।

ডা. আয়েশা আক্তার জানান, এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৮১ জনসহ ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১ লাখ ২৮২ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৯৯ হাজার ৬২৪ জন, চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৩৯৪ জন। আর ডেঙ্গু সন্দেহে ২৬৪টি মৃত্যুর মধ্যে ২০৪টি তথ্য পর্যালোচনা করে ১২৯ জনের এই রোগে মৃত্যু বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ নভেম্বর, ২০১৯ ১০:১২
প্রিন্ট করুন printer

গোপালগঞ্জে ডেঙ্গু জ্বরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতির মৃত্যু

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

গোপালগঞ্জে ডেঙ্গু জ্বরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতির মৃত্যু

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার শুকতাইল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আল মামুন আলমের (৪২) মৃত্যু হয়েছে। 

রবিবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 

আল মামুন সদর উপজেলার শুকতাইল ইউনিয়নের মৃত দাউদ মোল্লার ছেলে।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মোহসিনউদ্দিন সিকদার এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানা,  প্রায় এক সপ্তাহ যাবত ডেঙ্গু জ্বরে ভুগছিলেন আল মামুন। রবিবার সন্ধ্যায় তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার রাত ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

আজ সোমবার জোহরের নামাজের পর জানাজার নামাজ শেষে স্থানীয় কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হবে বলেও তিনি জানান।

বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ৬ নভেম্বর, ২০১৯ ২২:১৭
প্রিন্ট করুন printer

ফতুল্লায় ডেঙ্গুতে জেএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :

ফতুল্লায় ডেঙ্গুতে জেএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার হাজীগঞ্জ এলাকায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মো. আবদুল্লাহ (১২) নামে এক জেএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিবিদ্যা নিকেতনের এই শিক্ষার্থী অসুস্থ শরীর নিয়েই গত মঙ্গলবার পর্যন্ত জেএসসির ৩টি পরীক্ষাতেই অংশগ্রহণ করে। 

আবদুল্লাহর বাবা দিনমজুর মো. আব্দুল হাকিম বলেন, গত ২ নভেম্বর জেএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর থেকেই তার ছেলে জ্বর অনুভব করে। পরের দিন স্থানীয় মাস্টার মেডিসিন কর্ণার থেকে ওষুধ এনে খাওয়ার পর জ্বরের তাপমাত্রা কিছুটা কমে আসে। এ অবস্থাতেই আব্দুল্লাহ পরীক্ষা দিয়ে আসছিল। গত মঙ্গলবার পরীক্ষা দিয়ে আসার পর শরীরের তাপমাত্রা বাড়তে থাকায় দুপুরের দিকে তাকে নারায়ণগঞ্জ দেড়শ শয্যা জেনারেল (ভিক্টেরিয়া) হাসপাতালে নেওয়া হয়। হাসপাতালের জরুরি বিভাগ থেকে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাসায় ফেরত পাঠায়। 
রাত ১০টার দিকে রক্ত বমি করার পর আব্দুল্লাহর অবস্থা আরও বেগতিক হলে তাকে আবারও ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের নেওয়া হয়। সেখান থেকে কিছু পরীক্ষা দেওয়া হয়। পরীক্ষার রিপোর্টে রক্তের স্বাভাবিক প্লাটিলেট দেড় লাখ থাকার স্থলে ৩২ হাজারে নেমে আসায় ভিক্টেরিয়া থেকে তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। সেখানে বুধবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় আব্দুল্লাহ।  

আব্দুল্লাহর বড় বোন রাবেয়া আক্তার বলেন, ‘ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল থেকে তাদের জানানো হয়েছে তার ভাই ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে।’ 

মুক্তিযোদ্ধা স্মতিবিদ্যা নিকেতনের ইংরেজি শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ জানান, নিহত আব্দুল্লাহ তাদের স্কুলের জেএসসি পরীক্ষার্থীদের মধ্যে নিয়মিত ছাত্র ছিল। তার অসুস্থতার খবর স্কুল কর্তৃপক্ষ জানতেন না বলে জানান তিনি।
 

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার

 

 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ৬ নভেম্বর, ২০১৯ ১১:৩৫
প্রিন্ট করুন printer

শেবাচিম হাসপাতালে আরও এক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

শেবাচিম হাসপাতালে আরও এক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আরও একজন ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকাল ৯টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। মৃত রোগীর নাম মনিজা বেগম (৪৫)। তিনি পিরোজপুর জেলার নেছারাবাদ উপজেলার রাজবাড়ী গ্রামের মো. কামালের স্ত্রী। এ নিয়ে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৪ জন ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু হলো। 

হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. বাকির হোসেন জানান, গত ২ নভেম্বর দুপুর ২টা ৫৫ মিনিটে ডেঙ্গু আক্রান্ত মনিজা বেগমকে বরিশাল মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা ছিলো আশংকাজনক। গত কয়েকদিন ধরে চিকিৎসকরা সাধ্য মতো চেষ্টা করেও তাকে সুস্থ্য করতে পারেননি। বুধবার সকাল ৯টার দিকে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে সে। 

এদিকে আগের চেয়ে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে কমেছে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি মাত্র ৪ জন রোগী। একই সময়ে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭ জন। গতকাল সকাল পর্যন্ত চিকিৎসাধীন ছিলো ১৪ জন। 

গত ১৬ জুলাই থেকে এ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ২ হাজার ৯’শ ২১ জন রোগী। এই সময়ে চিকিৎসায় সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ২ হাজার ৮শ’ ৯৩ জন। লাশ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১৪ জন। 


বিডি-প্রতিদিন/মাহবুব

 


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০৯:২৮
প্রিন্ট করুন printer

খুলনায় আরেক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

খুলনায় আরেক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু
প্রতীকী ছবি

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সবিতা (৪০) নামে একজন ডেঙ্গুরোগী আজ ভোর রাতে মারা গেছেন। 

তিনি যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার হারাধনের স্ত্রী। এ নিয়ে খুলনায় এ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত ২৫ জনের মৃত্যু হলো।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের আবাসিক ফিজিশিয়ান (আরপি) ডা. শৈলেন্দ্রনাথ বিশ্বাস জানান, ডেঙ্গু আক্রান্ত সবিতা গত রবিবার ভর্তি হন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোরে তিনি মারা যান।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর