শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২০:৫০
আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২০:৫৪

চলচ্চিত্র জগত্‍‌ সম্পূর্ণ নেশাগ্রস্ত, ফের বিস্ফোরক কঙ্গনা

অনলাইন ডেস্ক

চলচ্চিত্র জগত্‍‌ সম্পূর্ণ নেশাগ্রস্ত, ফের বিস্ফোরক কঙ্গনা

সুর নরম করার কোনো লক্ষণই দেখা যাচ্ছে কঙ্গনা রানাওয়াতের। বরং যত দিন যাচ্ছে, তার কথার ঝাঁঝ বাড়ছে। বলিউডের মাদক নিয়ে মুখ খুলে ইতিমধ্যেই অনেকের চক্ষুশূল হয়েছেন। আবারও তিনি টার্গেট করলেন বলিউডকেই। তার দাবি, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি সম্পূর্ণরূপে নেশাগ্রস্ত।

বুধবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এক পোস্টে কঙ্গনা লেখেন, 'শো বিজনেস সম্পূর্ণরূপে নেশাগ্রস্ত। এর থেকে বোঝা যায়, বিশ্বের লাইট ও ক্যামেরা একজনের জীবন ও তার একটা বিকল্প বাস্তব তৈরি করে। তাদের নিজস্বতা থাকে সামান্য় বুদবুদের মতোই। এই বিভ্রমকে স্বীকৃতি দিতে খুব শক্তিশালী আধ্যাত্মিক বিশ্বাস লাগে।'

পোস্টটিতে এই লেখার পাশাপাশি নিজের একটি ছবিও শেয়ার করেছেন কঙ্গনা। সেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি বড় শোয়ের জন্য তৈরি হচ্ছেন তিনি। পরছেন লিপিস্টিক।

এদিকে, মঙ্গলবার সংসদে কঙ্গনা রানাওয়াতের নাম উল্লেখ না করে তার সমালোচনা করেছেন বলিউডের প্রবীণ অভিনেত্রী তথা সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চন। তাকে জবাব দিতে সুর আরও ঝাঁঝাল করেন কুইনখ্যাত অভিনেত্রী কঙ্গনা। সরাসরি জয়া-অমিতাভের সন্তান অভিষেক ও শ্বেতার নাম টেনে প্রশ্ন ছুড়ে দেন তিনি।

কঙ্গনা টুইট করে জয়া বচ্চনকে বলেন, 'আমার জায়গায় যদি আপনার কন্যা শ্বেতা থাকতেন, তাকেও যদি মারধর করা হত, কিশোরী অবস্থায় টেনে-হিঁচড়ে শ্লীলতাহানি করা হতো, তাহলেও কি আপনি এই একই কথা বলতেন? যদি অভিষেক সব সময় হেনস্থার অভিযোগ করতেন এবং একদিন তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যেত, তাহলেও কি আপনি এই একই কথা বলতেন? আমাদের প্রতিও সমবেদনা জানান।'

কঙ্গনার সমালোচনা করে মঙ্গলবার জয়া বচ্চন বলেন, 'মুম্বাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে অপমান করার ষড়যন্ত্র চলছে। এটা লজ্জার। বিনোদন জগতের মানুষদের সোশ্যাল মিডিয়ায় অপমানের শিকার হচ্ছে। যে সব লোকেরা এই ইন্ডাস্ট্রিতে এসেই নাম কামিয়েছেন, তারাই এখন একে নর্দমা বলছেন। আমি এর সঙ্গে একেবারেই সহমত নই। আশা করব, এই ধরনের লোকেদের এই ভাষা ব্যবহার বন্ধ করতে বলবে সরকার।'

কিছুদিন আগেই বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে 'গটর' অর্থাত্‍‌ নর্দমা বলে কটাক্ষ করেছিলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। তিনি অভিযোগ করেছিলেন, ইন্ডাস্ট্রির ৯৯ শতাংশ মানুষই মাদকের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছেন।

সূত্র : এই সময়

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর