১৪ আগস্ট, ২০২২ ০৮:৫৭

‘এই ছবিটিতে আপত্তি করার মতো কি এমন পেয়েছে?’

শওগাত আলী সাগর

‘এই ছবিটিতে আপত্তি করার মতো কি এমন পেয়েছে?’

শওগাত আলী সাগর

১. ‘শনিবার বিকেল’ ছবিটি দেখার পর টরন্টোর বাংলাদেশিদের প্রায় সবার মনেই প্রথম যে প্রশ্নটি জেগেছে- সেটি হলো- বাংলাদেশের সেন্সর বোর্ড এই ছবিটিতে আপত্তি করার মতো কি এমন পেয়েছে যে, এই ছবিটি আটকে রেখেছে! কানাডায় ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অব সাউথ এশিয়ার দ্বিতীয় দিনে এই ছবিটি প্রদর্শিত হয়েছে। ফেস্টিভ্যালের শুরুর দিনে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর আন্তর্জাতিক সিনেমা ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ দেখানো হয়েছে।

২. মর্নিংসাইড সিনেপ্লেক্সে ‘শনিবারের বিকেল’ এর টিকেট শেষ হয়ে গিয়েছিল আগেই। বিপুল সংখ্যক প্রবাসী আগ্রহ নিয়েই ছবিটি দেখতে গিয়েছেন। এমনিতেই ফারুকীর ছবির প্রতি দর্শকদের আলাদা একটা আগ্রহ আছে। হলভর্তি দর্শক সিনেমাটি দেখেছেন, সিনেমাশেষে পরিচালক ফারুকীকে নানা প্রশ্ন করেছেন, ফারুকী সেগুলোর জবাবও দিয়েছেন। যে প্রশ্নটির জবাব ফারুকীরও জানা ছিল না- সেটি হচ্ছে- ‘শনিবারের বিকেল’কে বাংলাদেশে দেখাতে দেওয়া হচ্ছে না কেন!

৩.  বাংলাদেশের ‘শনিবারের বিকেল’ সেন্সর বোর্ডের লাল ফিতায় তিন বছরের বেশি সময় ধরে আটকে থাকলেও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চলচ্চিত্র উৎসবে ছবিটি প্রদর্শিত হচ্ছে, প্রশংসিত হচ্ছে। একই সঙ্গে তারা এও জেনে যাচ্ছে- বাংলাদেশে এই ছবিটি দেখাতে দেয়া হচ্ছে না।

৪. কানাডার ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে ‘শনিবারের বিকেল’ দেখার পর টরন্টোর দর্শকদের মনে যেমন প্রশ্ন জেগেছে- কেন এই সিনেমাটি আটকে রাখা হয়েছে, একই প্রশ্ন নিশ্চয়ই অন্যান্য দেশেও হয়েছে। 

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)
 

লেখক: প্রকাশক ও সম্পাদক, নতুন দেশ ডটকম

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর