শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২১ মে, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ মে, ২০১৬ ২৩:৪৫

এত বড় দম্ভোক্তি ভালো নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক

এত বড় দম্ভোক্তি ভালো নয়

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পার্টির এমপি সেলিম ওসমান একজন সম্মানিত স্কুল শিক্ষককে অপমান করেছেন, এটা চরম খারাপ কাজ হয়েছে। এই অপরাধের ক্ষমা চাওয়ার পরিবর্তে তিনি উল্টো আঙ্গুল তুললেন? এটা হতে পারে না। এত বড় দম্ভোক্তি ভালো নয়। গতকাল বিকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় শিল্পকলা একাডেমির ৬ নম্বর গ্যালারিতে যুবলীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম ও বিশ্বে আজ ধ্রুবতারা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা’ গ্রন্থের সপ্তাহব্যাপী সংবাদচিত্র প্রদর্শনীর অংশ হিসেবে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ প্রমুখ। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, জাপা চেয়ারম্যান সরকারের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সমালোচনা করেন। দলটির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদেরকে ক্লিন ইমেজের রাজনীতিক নেতা হিসেবে ধরা হয়, তিনিও শিক্ষককে অপমানের বিষয়ে নিশ্চুপ। আর বিএনপিও সরকারের বিভিন্ন বিরুদ্ধাচরণ করলেও এই ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করছে না। কারণ দুটি দলই একই ভাবধারার, চোরে চোরে মাসতুতো ভাই। এটা চরম উদ্বেগজনক। বিএনপির সমালোচনা করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, বেগম খালেদা জিয়া জ্বালাও-পোড়াও করে মানুষ হত্যা করলেন, এমনকি প্রধানমন্ত্রী-পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়কেও হত্যার ষড়যন্ত্র করলেন। কোনো চক্রান্তেই তিনি সফল হলেন না। এবার তার দলে উড়ে এসে জুড়ে বসা নেতা আসলাম চৌধুরীকে দিয়ে সরকার উত্খাতের ষড়যন্ত্র করছেন। কোনো অপরাধী পার পাবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, অপরাধ করলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাউকে খাতির করেন না। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ায় তিনি মন্ত্রীকেও ছাড় দেননি। এ ছাড়া অপরাধে জড়িত থাকায় এমপি এবং দল বা এর অঙ্গ সংগঠনের কোনো নেতাকে ছাড় দেননি, ভবিষ্যতেও দেবেন না। তাই বিশ্বের নিকৃষ্ট গোয়েন্দা সংস্থা লাখো মুসলিমের হত্যাকারী ইসরায়েলি মোসাদকে নিয়ে যারা ষড়যন্ত্র করছেন তাদেরও ছাড় দেওয়া হবে না, তাদের বিচারের আওতায় আনা হবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর