শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ মার্চ, ২০১৭ ২২:৪৪

বুড়িগঙ্গা রক্ষা না হলে ঐতিহ্য বিলীন

নিজস্ব প্রতিবেদক

বুড়িগঙ্গা রক্ষা না হলে ঐতিহ্য বিলীন

বিশিষ্ট কলামিস্ট ও গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, বুড়িগঙ্গার সঙ্গে আমাদের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য জড়িয়ে রয়েছে, তাই এই নদী রক্ষায় সরকারকে উদ্যোগ নিতে হবে। তা না হলে ঢাকা তথা দেশের ঐতিহ্য বিলীন হয়ে যাবে।

তিনি এও বলেন, দেশের অবকাঠামো উন্নয়নে হাজার হাজার কোটি টাকার বড় বড় প্রকল্প হাতে নিচ্ছে সরকার। তেমনিভাবে বুড়িগঙ্গা নিয়েও সরকারকে বড় প্রকল্প নিতে হবে। প্রয়োজন হলে অন্যান্য প্রকল্পের ব্যয় কমিয়ে এই খাতে বরাদ্দ দিতে হবে। একই সঙ্গে নদী দখল বন্ধ ও অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করতে হবে। গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় পুরান ঢাকার সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল এলাকায় এক মানববন্ধনে এসব বলেন তিনি। দূষণ ও দখল থেকে বুড়িগঙ্গা নদী রক্ষায় সদরঘাট ছাড়াও নারায়ণগঞ্জের পাগলা থেকে বছিলা পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে যৌথভাবে মানববন্ধনের আয়োজন করে বুড়িগঙ্গা বাঁচাও আন্দোলন, বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলন ও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা)। এতে রাজধানীর অর্ধ-শতাধিক শিক্ষা, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠন অংশ নেয়।

সৈয়দ আবুল মকসুদ আরও বলেন, ঢাকা শহরের বিভিন্ন কল-কারখানা ও শিল্প-প্রতিষ্ঠান বুড়িগঙ্গা নদীতে সরাসরি বর্জ্য ফেলছে। এসব প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সরকারের প্রভাবশালী ব্যক্তি ও অন্য রাজনৈতিক দলের নেতারা জড়িত রয়েছেন। যে সরকারই ক্ষমতায় আসে, তারা বুড়িগঙ্গা নদী রক্ষায় কোনো ধরনের ভূমিকা পালন করে না। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাপার সহসভাপতি খন্দকার বজলুল হক, যুগ্ম সম্পাদক মিহির বিশ্বাস, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহিদুল হক খান, বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আনোয়ার সাদত, ঢাকা যুব ফাউন্ডেশনের সভাপতি মো. শহীদুল্লাহ, নাজিরাবাজার পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য