Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৪৪

আদেশের কপির অপেক্ষায় ইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক

আদেশের কপির অপেক্ষায় ইসি

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদের উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে তফসিল চ্যালেঞ্জ করে দায়ের রিট খারিজ সংক্রান্ত আদালতের আদেশের কপি পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আদেশের কপি হাতে পাওয়ার পরে দ্রুত এ নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নেবে কমিশন। ইসির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আদালতের আদেশের কপির জন্য আমরা অপেক্ষায় আছি। আশা করা হচ্ছে আজ-কালের মধ্যে আইনজীবী সনদ পেয়ে যাব। তবে ইসি সচিবালয় এ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য প্রয়োজনীয় ফাইল প্রস্তুত করে রাখছে। আদেশের কপি হাতে পাওয়ার পরে কমিশন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবে। আগামী মার্চে শুরু হতে যাওয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের মাঝেই এ নির্বাচন করতে কোনো সমস্যা হবে না বলে গত বুধবার জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। তিনি বলেছেন, ‘ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উপনির্বাচনের পুনঃতফসিল করতে হবে। এ নির্বাচন নিয়ে কমিশনের সঙ্গে বসতে হবে। তিনি বলেন, তাড়াতাড়ি এ নির্বাচন করে ফেলব। এক্ষেত্রে উপজেলা নির্বাচন নিয়ে কোনো সমস্যা হবে কি না জানতে চাইলে সিইসি বলেন, উপজেলা নির্বাচনের কারণে ডিএনসিসি নির্বাচন নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না। উপজেলা নির্বাচনের মাঝেই এ নির্বাচন করে ফেলব।’

 

ইসির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আদালতের আদেশের কপি হাতে পেলে কমিশনের কাছে তা উপস্থাপন করা হবে। আজ-কালের মধ্যে হয়তো কপি হাতে পাওয়া যাবে। তারা বলেন, দ্রুত এ নির্বাচন করতে কোনো সমস্যা হবে না। মার্চের প্রথম সপ্তাহে উপজেলা নির্বাচন শুরু হচ্ছে। এক্ষেত্রে প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচনের সঙ্গে বা আলাদাভাবে মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহে এ নির্বাচন করা যেতে পারে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উপনির্বাচন হতে আইনগত কোনো বাধা নেই। উপনির্বাচনের তফসিলের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে করা রিট আবেদন বুধবার খারিজ (রুল ডিসচার্জ) করে দিয়েছে হাই কোর্ট। এতে ওই নির্বাচনের তফসিলের ওপর এর আগে দেওয়া স্থগিতাদেশ থাকে না বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা।

২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর লন্ডনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মেয়র আনিসুল হক। তাঁর মৃত্যুতে ডিএনসিসির মেয়র পদটি ১ ডিসেম্বর শূন্য ঘোষণা করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। আইন অনুযায়ী ইসি ২০১৮ সালের ৯ জানুয়ারি এ পদে উপনির্বাচন এবং ডিএনসিসিতে নতুন যুক্ত ১৮টি ওয়ার্ডে সাধারণ নির্বাচন এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে যুক্ত হওয়া ১৮টি ওয়ার্ডের নির্বাচনের তফসিল দেয়। ওই বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোট হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আলাদা রিটের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত গেল বছরের ১৭ জানুয়ারি ডিএনসিসি নির্বাচনের তফসিলের কার্যকারিতা স্থগিত করেন। আর ১৮ জানুয়ারি ছিল মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন। তার আগে উত্তর সিটিতে মেয়র পদে ১৯ জন এবং সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে প্রায় পাঁচশ জন মনোনয়নপত্র নিয়েছিল।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর