শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১০ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৯ মার্চ, ২০১৯ ২৩:০৭

নতুন জাত উদ্ভাবনে কৃষি বিপ্লব হয়েছে বাংলাদেশে

নিজস্ব প্রতিবেদক

নতুন জাত উদ্ভাবনে কৃষি বিপ্লব হয়েছে বাংলাদেশে
নোবেল বিজয়ী রিচার্ড রবার্টস

নোবেল বিজয়ী স্যার রিচার্ড জে. রবার্টস বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জাত উদ্ভাবনে গবেষণা করছেন বিজ্ঞানীরা। বাংলাদেশে জনসংখ্যার সঙ্গে আনুপাতিক হারে উচ্চফলনশীল ধানের জাত উদ্ভাবন করেছেন বিজ্ঞানীরা। এ প্রকল্পে সরকারেরও ব্যাপক প্রণোদনা ছিল। সব কিছু মিলিয়ে দেশের জনগোষ্ঠীর পুষ্টি চাহিদা মেটাতে উদ্ভাবিত জাত দিয়ে কৃষি বিপ্লব ঘটিয়েছে বাংলাদেশ।

গতকাল নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে ‘উন্নয়নশীল দেশে জনস্বাস্থ্য ঝুঁকি এবং সম্ভাবনা’ বিষয়ে আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্যানেল আলোচক ছিলেন ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড এবং জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক রিটা আর কলওয়েল, ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ডের অধ্যাপক আনোয়ার হক, করনেল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক শেলি ফ্লেডম্যান, ইউনিভার্সিটি অব ডেনভারের অধ্যাপক হায়দার এ খান, ইউনিভার্সিটি অব ইলিনয়ের অধ্যাপক তাহের সাইফ, ইউনিভার্সিটি অব ম্যাসাচুয়েটসের অধ্যাপক মোহাম্মদ আতাউল করিম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের টাস্ট্রি বোর্ডের চেয়ারম্যান এম এ হাশেম। স্যার রিচার্ড জে. রবার্টস বলেন, সনাতন ও আধুনিক দুই পদ্ধতিতে জাত উন্নয়নের চেষ্টা পৃথিবীব্যাপী চলছে। শংকরায়ন নিয়ে বিভিন্ন ধরনের মতবাদ রয়েছে। তবে শস্যের ক্ষেত্রে পুষ্টিমানের দিকে নজর দেওয়া জরুরি। অনুষ্ঠানে উন্নয়নশীল দেশের জনস্বাস্থ্যের ঝুঁকি বিষয়ে উপস্থাপনা তুলে ধরেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক গিয়াস ইউ আহসান। এ সময় তিনি অসংক্রামক রোগের ঝুঁকি বাড়ছে বলে জানান। এ ব্যাপারে অধ্যাপক রিটা আর কলওয়েল বলেন, খাদ্যাভ্যাস এবং দৈনন্দিন জীবনের কিছু অভ্যাস পাল্টালে অসংক্রামক রোগের ঝুঁকি অনেকটা কমে যায়। যেমন নিয়মতান্ত্রিক জীবনযাপনে ডায়াবেটিস রোগের ঝুঁকি কমানো সম্ভব।


আপনার মন্তব্য