প্রকাশ : বুধবার, ১৩ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ মার্চ, ২০১৯ ২২:৪২

পুনঃ ভোটের সুযোগ নেই : উপাচার্য

নিজস্ব প্রতিবেদক

পুনঃ ভোটের সুযোগ নেই : উপাচার্য

ডাকসু নির্বাচনে অংশ নেওয়া প্যানেলগুলো অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে পুনঃ ভোটের দাবি জানালেও তা নাকচ করে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, ‘নির্বাচন হয়ে গেছে। ফলাফলও ঘোষণা করা হয়েছে। আমাদের গণতান্ত্রিক রীতিনীতি ও ডাকসুর গঠনতন্ত্র- এগুলো নিয়ে চলতে হবে। উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ পুনঃ ভোটের দাবি সরাসরি নাকচ করে বলেছেন, ‘নতুন করে নির্বাচন হওয়ার আর কোনো সুযোগ নেই।’ ভোট চলাকালে বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলে বস্তাভর্তি ব্যালট এবং রোকেয়া হলে ট্রাংকভর্তি ব্যালট পাওয়ার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সামাদ গতকাল নিজের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ‘দুটি হলের একটিতে অনিয়মের প্রমাণ পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিয়েছি। তবে অন্য একটি হলে (রোকেয়া হলে) যা হয়েছে, সেটি ছিল হাঙ্গামা। সেখানে কোনো অনিয়ম হয়নি।’ ডাকসু নির্বাচনের অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলার অভিযোগ তদন্তে মুহাম্মদ সামাদের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি ‘তথ্যানুসন্ধান দল’ গঠন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তিনি বলেন, এই তদন্ত দল ‘অল্প কিছু দিনের মধ্যে’ তাদের তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবে। কোটা আন্দোলনকারীদের নেতা নুরুল হক নুরকে ‘পরিকল্পিতভাবে’ ভিপি পদে জিতিয়ে দেওয়ার অভিযোগের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে অধ্যাপক সামাদ বলেন, ‘অপটিক্যাল মার্ক রিকগনিশন (ওএমআর) মেশিনে ভোট গননা হয়েছে। এখানে এ অভিযোগের কোনো সুযোগ নেই। তাছাড়া কোটা সংস্কার আন্দোলনের প্রায় সব দাবিই তো প্রধানমন্ত্রী মেনে নিয়েছেন। কোটা আন্দোলনের কথা বলছে, কিন্তু কোটা আন্দোলনের অবশেষ আর কিছু নেই এখন।’


আপনার মন্তব্য