Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
প্রকাশ : বুধবার, ১৫ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ মে, ২০১৯ ২২:২৯

ভারতে গার্মেন্ট পণ্য রপ্তানি বাড়াতে চায় বাংলাদেশ

নয়াদিল্লি প্রতিনিধি

ভারতে গার্মেন্ট পণ্য রপ্তানি বাড়াতে চায় বাংলাদেশ

উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা থেকে বাংলাদেশের জন্য দিল্লি বৈঠকে প্রাপ্য বাণিজ্যিক সুবিধার দাবি তুললেন বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুন্শি। তিনি একই সঙ্গে ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী সুরেশ প্রভুর সঙ্গে পৃথক দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বাংলাদেশের পণ্যের ওপর থেকে অ্যান্টি ডাম্পিং শুল্ক প্রত্যাহার এবং ভারতে বাংলাদেশের গার্মেন্ট অধিক মাত্রায় রপ্তানি করার আগ্রহ জানালেন। ভারতের মন্ত্রী এই দুটি বিষয় ইতিবাচকভাবে বিবেচনা করবেন বলে জানিয়েছেন। বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার মন্ত্রী পর্যায়ের দুই দিনব্যাপী বৈঠক হয় দিল্লিতে। এই প্রথম উন্নয়নশীল দেশের প্রতিনিধি হিসেবে যোগ দেন বাংলাদেশের বাণিজ্যমন্ত্রী। বৈঠকে বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার ডিজি রাবার্টো এজেভাডো এবং ২৩টি উন্নয়নশীল দেশের প্রতিনিধি যোগ দেন। বৈঠক শেষে গতকাল ১৩ দফার এক যৌথ ঘোষণাপত্রে বাংলাদেশের দাবি উল্লিখিত হয়েছে। এটা বাংলাদেশের পক্ষে জয় বলে মনে করেন বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা। উল্লেখযোগ্য হলো ভারত-চীনসহ সবাই উন্নয়নশীল দেশের জন্য বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার অবিলম্বে বৈষম্য দূর করার দাবিতে একমত।

বাংলাদেশের পক্ষে প্রধান অসুবিধা হয়ে দাঁড়িয়েছে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পাওয়ার পর সেই মতো বাণিজ্যিক সুবিধা এখনো বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা দেয়নি। এখনো সেই স্বল্পোন্নত দেশের স্তরেই রেখে দেওয়া হয়েছে। সেই কারণে বাণিজ্যমন্ত্রী বৈঠকে জোরালো দাবি তোলেন। বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার আপিল সংস্থার শূন্যস্থান উন্নত দেশগুলোর বাধায় এখনো পূরণ করা যাচ্ছে না। সেই কথা তিনিও তোলেন। সেটা যৌথ ঘোষণাপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু ডিজি ডব্লিউটিওর মতে তাড়াতাড়ি এই কাজ করা দরকার। তবে বর্তমান ব্যবস্থার এখনই সংস্কার করা যাবে না বলে তিনি প্রথম দিনের নৈশভোজে জানান। মন্ত্রী টিপু মুন্শি বলেন, ‘২০০৪ সালের সাধারণ অধিবেশনের গৃহীত প্রস্তাব অনুসারে বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশের বাণিজ্য সুবিধা দেওয়া উচিত। তা না হলে অযথা বাংলাদেশ বঞ্চিত হচ্ছে। বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছে বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিরলস পরিশ্রম ও দূরদৃষ্টিসম্পন্ন নীতির জন্য। ভারতের মন্ত্রী সুরেশ প্রভু বৈঠকের পৌরোহিত্য করেন। এতে অংশ নিয়েছেন বাংলাদেশ ছাড়াও চীন, মিসর, বার্বাডোজ, নাইজেরিয়া, সৌদি আরব, দক্ষিণ আফ্রিকাসহ ২৩টি দেশ।


আপনার মন্তব্য