Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ জুন, ২০১৯ ২৩:৩০

আক্ষেপের নাম ‘রিজার্ভ ডে’

আক্ষেপের নাম ‘রিজার্ভ ডে’

কখনো রোদ, কখনো বা মেঘলা আকাশ। সেই সঙ্গে বইছে মৃদু মন্দ বাতাস। কিন্তু গতকাল বৃষ্টির ছিটেফোঁটাও ছিল না ব্রিস্টলে। অথচ একদিন আগে বৃষ্টির কারণে মাঠে কোনো বলই গড়াল না। মাত্র ১২ ঘণ্টার ব্যবধানে ব্রিস্টলের আবহাওয়ায় কী ক্যারিশমেটিক পরিবর্তন! এ কারণে বাংলাদেশ দলের আক্ষেপটা যেন আরও বেড়ে যাচ্ছে। ইস্, ম্যাচে যদি ‘রিজার্ভ ডে’ থাকতো! অন্তত মহামূল্যবান একটি পয়েন্ট হারাতে হতো না। ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার পর ‘রিজার্ভ ডে’র জন্য হতাশা প্রকাশ করেছিলেন বাংলাদেশের কোচ স্টিভ রোডস। ৪৮ ম্যাচের টুর্নামেন্টের মধ্যে কেবল মাত্র ১৬তম ম্যাচের খেলা হলো। এরই মধ্যে তিনটি ম্যাচ পন্ড হয়ে গেছে, একটি ম্যাচে কার্টেল ওভারে খেলা হয়েছে। সামনে আরও বৃষ্টির পূর্বাভাস আছে। অথচ সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ছাড়া আর কোনো ম্যাচে আইসিসি কোনো রিজার্ভ ডে রাখেনি। বাংলাদেশ - শ্রীলঙ্কা ম্যাচ পন্ড হয়ে যাওয়ার পর আইসিসির ফ্যান পেজে ক্রিকেটামোদীরা ক্ষোভ প্রকাশও করেছিলেন। কিন্তু ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা আইসিসি নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল। তারা বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছে, কোনোভাবেই গ্রুপ পর্বে রিজার্ভ ডে রাখা সম্ভব নয়!

একটি বিশ্বকাপের জন্য একটি দলের চার বছরের পরিশ্রম জড়িত থাকে। ভক্তরা অধীর আগ্রহ নিয়ে প্রতীক্ষা করেন। অথচ বৃষ্টির কারণে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় সবই শেষ হয়ে যায়। যেমন প্রথম তিন ম্যাচে ইংল্যান্ড, বাংলাদেশ ও ভারতের কাছে হেরে ব্যাকফুটে চলে গিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তাদের চতুর্থ ম্যাচটি পরিত্যক্ত হওয়ায় সবার আগে বিদায় ঘণ্টা বেজে গেছে শিরোপা প্রত্যাশী দলটির। বাংলাদেশের সম্ভাবনাও অনেকটা কমে গেছে। কারণ লঙ্কানদের বিরুদ্ধে ম্যাচে পুরো দুই পয়েন্ট পাওয়ার আশায় বুক বেঁধে ছিলেন মাশরাফিরা। কিন্তু সে আশায় গুড়েবালি। তবে সেমিফাইনাল খেলার স্বপ্ন একেবারে শেষ হয়ে যায়নি। এখনো বাংলাদেশের সামনে আছে ৫টি ম্যাচ। প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়া, ভারত, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান। আপাতত ১৭ জুন ক্যারিবীয়দের ম্যাচটি নিয়েই ভাবছেন মাশরাফিরা। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে টনটনে। জয়ের ব্যাপারে বেশ আশাবাদী কোচ স্টিভ রোডস, ‘আমরা পরের ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছি।’

টাইগাররা প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দুর্দান্ত জয়ে বিশ্বকাপ শুরু করেছিল। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয়ের খুব কাছে গিয়েও হারতে হয়েছে। ইংলিশদের বিরুদ্ধে তো দাঁড়াতেই পারেনি। তারপর ব্রিস্টলে পয়েন্ট হারাতে হলো শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে। কষ্ট নিয়েই গতকাল টনটনের উদ্দেশ্যে রওনা হন ক্রিকেটাররা।

কার্ডিফ ও ব্রিস্টল ছিল টাইগারদের সৌভাগ্যের ভেন্যু। এবার এই দুই মাঠেই মুদ্রার উল্টো পীঠও দেখল বাংলাদেশ। যে কার্ডিফে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয় ছিল সেই ভেন্যুতেই এবার বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাজেভাবে হারতে হলো। আর এই ব্রিস্টলে খেলা একমাত্র ম্যাচে ইংল্যান্ডকে হারিয়েছিল টাইগাররা সেখানেই বৃষ্টির কারণে পয়েন্ট হারাতে হলো। দুই লাকি ভেন্যু যেন এখন টাইগারদের কাছে বড় ‘অপয়া’!


আপনার মন্তব্য