Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ নভেম্বর, ২০১৯ ২৩:১৬

জাবির বন্ধ ক্যাম্পাসে আন্দোলন চলছেই

ভিসির বিরুদ্ধে দুর্নীতির প্রমাণ জমা দেওয়ার প্রস্তুতি

শরিফুল ইসলাম সীমান্ত, জাবি প্রতিনিধি

জাবির বন্ধ ক্যাম্পাসে আন্দোলন চলছেই

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’র আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণার তৃতীয় দিনেও ব্যাঙ্গাত্মক পটচিত্র অঙ্কন এবং প্রতিবাদী মিছিলের মাধ্যমে এ কর্মসূচি পালিত হয়। এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারির জবাবে উপাচার্যের দুর্নীতির তথ্য-উপাত্ত জমা দিতে কাজ চলছে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনের সংগঠক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক তারেক রেজা। গতকাল সন্ধ্যায় তিনি জানান, আর্থিক দুর্নীতির পাশাপাশি বর্তমান প্রশাসনের সব অনিয়ম ও দুর্নীতির তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহের কাজ চলছে। শেষ হওয়া মাত্র তা শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং ইউজিসিতে জমা দেওয়া হবে। এদিকে গতকাল সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে ৬০ গজ সাদা কাপড়ের ওপর উপাচার্যের বিরুদ্ধে আনীত আর্থিক দুর্নীতি এবং সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া নানা ঘটনায় উপাচার্য এবং বর্তমান প্রশাসনের বিরুদ্ধে ব্যঙ্গ করে চিত্র অঙ্কন করে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে আন্দোলনকারীরা। এদিকে ঘূর্ণিঝড় প্রভাবিত গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিসহ নানা দুর্ভোগের মধ্যেও ক্যাম্পাস ছাড়েননি আন্দোলনকারীরা। আবাসিক হল তালাবদ্ধ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের খাবার দোকানগুলো বন্ধ থাকায় আবাসন এবং খাদ্য সংকটে ভুগছেন তারা। প্রসঙ্গত, গত বছরের ২৩ অক্টোবর একনেকে জাবির অধিকতর উন্নয়নের জন্য ১ হাজার ৪৪৫ কোটি টাকার বাজেট বরাদ্দ হয়। প্রকল্পের শুরু থেকেই অপরিকল্পিত উন্নয়ন পরিকল্পনা, সহস্রাধিক গাছ কাটা এবং শাখা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে টেন্ডার ছিনতাইয়ের অভিযোগে সমালোচনার মুখে পড়ে এই প্রকল্প। এরপর এ বছর গত ২৩ আগস্ট বাংলাদেশ প্রতিদিনে ‘উন্নয়ন প্রকল্পের দুই কোটি টাকা ছাত্রলীগের পকেটে’ শীর্ষক একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর থেকেই উপাচার্যকে দুর্নীতিবাজ আখ্যা দিয়ে তার অপসারণের দাবিতে আন্দোলন শুরু করে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’।


আপনার মন্তব্য