শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৮ মার্চ, ২০২০ ২৩:২৭

দেশজুড়ে বন্ধ অব্যাহত

রাস্তায় পানি ছিটানো, মাস্ক সরবরাহ ও সচেতনতায় সেনা টহল

নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশজুড়ে বন্ধ অব্যাহত
জনসচেতনতায় বরিশালে সেনা সদস্যদের টহল ও মাইকিং -বাংলাদেশ প্রতিদিন

চেনা পথঘাটগুলোও অচেনা এখন ঢাকা শহরের। সন্ধ্যা ৭টার শাহবাগ মানে দম আটকে থাকা জ্যাম। সেই শাহবাগ করছে খাঁখাঁ। মিরপুর রোড বা ওয়ারী কোথাও নেই গাড়ির হর্ন, রিকশার টুংটাং কিংবা বেপরোয়া বাইকারের চিৎকার। সব শুনশান, যেন কোনো এক জাদুর কাঠির ছোঁয়ায় সবাই গভীর ঘুমে। শুধু মাঝেমধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী কর্মী আর সংবাদমাধ্যমের গাড়ি, আছে জরুরি সেবাদানকারীদের উপস্থিতি। জনশূন্য রাজপথে সেনাবাহিনী, পুলিশ আর র‌্যাবের যৌথ টহল। আর জীবাণুনাশক ওষুধ ছিটাতে ব্যস্ত নৌবাহিনী। এর মাঝেই পুলিশের গাড়ি বা অ্যাম্বুলেন্সের সাইরেন। পথে থাকা হাতে গোনা মানুষেরও চমকে ওঠা। না, এ দৃশ্য শুধু ঢাকারই নয়, বিশ্বের আরও অনেক শহরের মতোই করোনাভাইরাস আতঙ্কে এ চেহারাই পেয়েছে বাংলাদেশের রাজধানী। ঢাকা ছাপিয়ে বিভাগীয় শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রাম পর্যন্ত এমন যুদ্ধাবস্থা। চলছে সেনা সদস্যদের মাইকে সতর্কতা মেনে চলার প্রচার। চীনের উহানে যে মূর্তিমান আতঙ্কের সঙ্গে মানুষের প্রথম দেখা, আজ গ্রহজুড়ে সে আতঙ্ক করোনাভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধে অঘোষিত লকডাউনে ঘরবন্দী নাগরিক। নিতান্ত প্রয়োজন ছাড়া তারাও আসতে চাইছেন না ঘরের বাইরে। দেশ বন্ধ থাকার দৃশ্যটা গত তিন দিন ধরে এমনই। করোনাভাইরাস রুখে নাগরিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় জীবাণুনাশক স্প্রে ছিটাচ্ছে সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, পুলিশ, র‌্যাব আর ঢাকা সিটি করপোরেশন। দিনে দুই বেলা করে ছিটানো হচ্ছে জীবাণুনাশক ওষুধ। এতে শত চেষ্টায়ও যা করা যায়নি, চোখে দেখা যায় না এমন একটি মারাত্মক জীবাণুর আতঙ্কই বদলে দিয়েছে রাজধানীর পথঘাটের চেহারা। বিশ্বজুড়ে লাখো মানুষকে আক্রান্ত করে বাংলাদেশে নভেল করোনাভাইরাস আসার অল্প কিছুদিনের মধ্যেই বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত নগরীর তালিকার ওপরের দিকে থাকা ঢাকার অনেক রাস্তাঘাট, অলিগলিই এখন ঝকঝকে। দোকানপাট বন্ধ থাকায় যত্রতত্র ময়লা-আবর্জনা, পলিথিনের ছড়াছড়ি দেখা যায় না। নিজেদের প্রয়োজনেই মানুষও এখন বাড়িঘরের আঙিনা পরিচ্ছন্ন রাখার চেষ্টা করছে। গাড়িঘোড়া, কলকারখানা, বেশির ভাগ নির্মাণকাজ বন্ধ থাকায় দেখা যায় না ধুলার মেঘও।

ডিএমপি কর্মকর্তাদের এই বন্ধে গতকাল দিকনির্দেশনা দিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার (ডিএমপি) মো. শফিকুল ইসলাম। মাঠপর্যায়ে কর্মরত পুলিশ সদস্যদের পাঠানো বার্তায় তিনি বলেছেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকায় একজন নাগরিক যে কোনো মাধ্যম ব্যবহার করে চলাফেরা করতে পারবেন। হোটেল ও বেকারিগুলো খোলা থাকবে। কারণ বহু মানুষের রান্নার ব্যবস্থা নেই।

সারা দেশের শহরাঞ্চলেও এক প্রকার অঘোষিত লকডাউন পরিস্থিতি বিরাজ করছে বলে জানানো হয়েছে আমাদের প্রতিনিধিদের খবরে। তবে গ্রামাঞ্চল এখনো অনিয়ন্ত্রিত বলেই জানান প্রতিনিধিরা।

চট্টগ্রাম : সারা দেশের মতো চট্টগ্রামেও অনেকটা অঘোষিত ‘লকডাউন’ চলছে। নগরের সড়কগুলোয় বন্ধ রয়েছে গণপরিবহনও। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, গণমাধ্যমকর্মী ও জরুরি পণ্যবাহী গাড়ি ছাড়া নেই কোনো যানবাহনও। নগরের ব্যস্ততম সড়কগুলোয় নেমে এসেছে প্রচ- নীরবতা। তবে এর বিপরীত চিত্র দেখা যাচ্ছে নগরের গলি-ঘুপছিগুলোয়। ব্যস্ততম সড়কগুলো ফাঁকা থাকলেও অলিগলিতে এখনো মানুষের আড্ডা আর জমায়েত বন্ধ হয়নি। যুব রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সাবেক সেক্রেটারি এ এস এম এরফান বলেন, ‘ভাইরাস সংক্রমণের বিষয়টি কারও ব্যক্তিগত নয়। এটা এখন সামাজিক, রাষ্ট্রীয় ও আন্তর্জাতিকতার যুদ্ধ। ফলে যারা হেলাফেলা করছে এবং অলিগলিতে অহেতুক আড্ডাবাজি করছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে খুব দ্রুতই।’

টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ও জনগণকে সচেতন করতে টাঙ্গাইল র‌্যাব নানা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। গতকাল দিনব্যাপী জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকায় এ কার্যক্রম পরিচালনা করে র‌্যাব। এ সময় রাস্তার পাশে তারা পথচারীদের হাত ধোয়ার জন্য সাবান-পানির ব্যবস্থা করে। যারা মাস্ক ছাড়া চলাফেরা করছিল র‌্যাব সদস্যরা তাদের মাস্ক পরিয়ে দেন।

পিরোজপুর : পিরোজপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ সচেতনতামূলক বার্তা প্রচার করেছে সেনাবাহিনী। এ ছাড়া শহরের বিভিন্ন সড়ককে জীবাণুমুক্ত করছে, গাড়িতে করে ছিটাচ্ছে জীবাণুনাশক স্প্রে।

বরিশাল : বরিশালে গত ২৪ ঘণ্টায় জনসমাগম, কোয়ারেন্টাইন না মানা, দোকানপাট খোলা রাখা ও অতিরিক্ত মূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও নিত্যপণ্য বিক্রির বিরুদ্ধে পরিচালিত পাঁচটি ভ্রাম্যমাণ আদালত ২৩ জনকে ৬৫ হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা করেছে। সরকারি নির্দেশ বাস্তবায়নে সর্বক্ষণ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছে। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুব্রত কুমার বিশ্বাস এ তথ্য জানিয়েছেন।

বাগেরহাট : বাগেরহাটে করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে গতকাল তৃতীয় দিনের মতো শহরের সব দোকান বন্ধ রয়েছে। লোকজন ঘর থেকে বের না হওয়ায় রাস্তাঘাট জনশূন্য। বাগেরহাট শহরসহ উপজেলা সদরে সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও পুলিশের কড়া নজরদারির মধ্যে রাস্তাঘাট ফাঁকা হয়ে গেছে। জেলা সদরসহ উপজেলাগুলোয় সব ধরনের দোকানপাট বন্ধ রয়েছে।

বগুড়া : বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু (৪৫) হয়েছে। খবর পাওয়ার পর শিবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন আশপাশের ১০টি বাড়ি লকডাউন করে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করেছে। মৃত বক্তির লালা, কফ, কাঁশির নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। চিকিৎসকরা এ মৃত্যুকে করোনাভাইরাস সন্দেহ করছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : কোয়ারেন্টাইন না মানায় এখন পর্যন্ত ২৫ জনকে জরিমানা করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে ৪ লাখ টাকা আদায় করা হয়েছে। জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে কুইক রেসপন্স টিম গঠন করা হয়েছে। প্রশাসন ও ডাক্তারদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখে করোনা প্রতিরোধে তারা কাজ করবে।

চাঁদপুর : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে চাঁদপুরের বিভিন্ন সড়কে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হচ্ছে। গতকাল দুপুরে চাঁদপুর পৌরসভার উদ্যোগে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা গাড়িযোগে জীবাণুনাশক স্প্রে করেন। শহরের কুমিল্লা সড়ক, কালীবাড়ী, বাসস্ট্যান্ড, মুক্তিযোদ্ধা সড়ক, রেলওয়ে স্টেশনসহ বিভিন্ন এলাকায় জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়।

শেরপুর : করোনা ঠেকাতে লকডাউন ঘোষণা না হলেও শেরপুরে অঘোষিত লকডাউন চলছে তিন দিন ধরে। ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের গুটিকয় দোকান ছাড়া সব বন্ধ। মিলছে না ডাক্তার। ওষুধও কিনতে হচ্ছে পুলিশের গোল করে দেওয়া বৃত্তের মধ্যে থেকে। শহরাঞ্চলগুলো একেবারেই পুলিশের নিয়ন্ত্রণে। কিন্তু গ্রামাঞ্চলের হাটবাজার, চায়ের দোকানগুলোয় উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

টেকনাফ (কক্সবাজার) : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টি, মানুষকে ঘরে থাকা, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে টেকনাফ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ও হ্নীলা নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে প্রচারাভিযান ও টহল চালিয়েছে উপজেলা প্রশাসন ও নৌবাহিনী।

সিরাজগঞ্জ : করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকারি নির্দেশ অমান্য করে গণপরিবহন চলাচল ও ট্রাকে যাত্রী পরিবহন করায় ২৯ পরিবহনের চালককে ৬৭ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুজ্জামানের নেতৃত্বে মহাসড়কের হাটিকুমরুল চত্বরে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর