শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ২৩:৪৫

মা-বাবার ভালোবাসায় ভাগ, চার বছরের মিমকে হত্যায় ভাই

নিজস্ব প্রতিবেদক

মা-বাবা চার বছরের শিশু মিমকে বেশি আদর করত। আর এটা সহ্য হয়নি মিমের আপন ভাই ১৩ বছরের কিশোর সজীবের। যে কারণে শিশু মিমকে গলাটিপে হত্যা করেছে সজীব। গতকাল সকালে খুনের একমাত্র আসামি আল আমিন ওরফে সজীবকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১। র‌্যাব বলছে, গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদেই বোনকে খুনের কারণ জানিয়েছে সজীব।

বুধবার রাজধানীর বনানী থানার জামাই বাজার এলাকার কড়াইল বস্তির বাসিন্দা লিটন মিয়ার ৪ বছরের শিশুকে গলা টিপে হত্যার ঘটনা ঘটে। পরে বনানী থানায় নিহত শিশু মিমের বাবা একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল শাফী উল্লাহ বুলবুল জানান, হত্যাকান্ডে র কারণ উদঘাটন করতে ছায়া তদন্তে নামে র‌্যাব। তদন্তে নেমে র‌্যাব জানতে পারে নির্মম হত্যার ঘটনা। বাবা-মায়ের অবহেলা আর ছোট বোনের প্রতি অতিরিক্ত ভালোবাসায় ঈর্ষান্বিত হয় তারই বড় ভাই আল-আমিন। পরে সে মিমকে শ্বাসরোধ করে খুন করে। সজীবের দেওয়া তথ্যের বরাত দিয়ে শাফী উল্লাহ বলেন, সজীব স্থানীয় একটি স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র। ছোট বোন মিম জত্নর পর থেকে তার প্রতি বাবা-মায়ের ভালোবাসা কমতে থাকে। যত দিন যায় বাবা-মা তার প্রতি উদাসীন হয়ে পড়ে এবং সব ভালোবাসা মিমের দিকে চলে যায়। কারণে-অকারণে সজীবকে মারধর করতেন তার বাবা-মা। এ কারণে ছোট বোনের প্রতি তার ক্ষোভ জন্মাতে থাকে। তিনি বলেন, সজীবের দাবি, তার বাবা-মা দুজনই তার ছোট বোনের সব আবদার পূরণ করলেও তার বেলায় ছিল বিপরীত। তাই সে ছোট বোন মিমকে বাবা-মায়ের চোখের আড়াল করার জন্য বিভিন্ন ফন্দি আঁটছিল। বুধবার সকালে  সেই সুযোগ পেয়ে যায় সজীব। প্রথমে আপন বোনকে ঘুমন্ত অবস্থায় গলা টিপে হত্যা করে খাটের নিচে লুকে রাখে। তার বাবা বাসায় ফিরে মেয়েকে না পেয়ে  খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। সেই সুযোগে সে মিমের মৃতদেহ পাশের  গোসলখানায় রেখে আসে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর