শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ ডিসেম্বর, ২০২০ ২৩:১৩

গুরুত্ব পাবে ভ্যাকসিন পানিসহ নানা ইস্যু

শেখ হাসিনা নরেন্দ্র মোদি ভার্চুয়াল বৈঠক আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে আজ ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। উভয় দেশের প্রধানমন্ত্রীর দফতর ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো এ সংক্রান্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে বলে দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানায়, বৈঠকে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ, ভ্যাকসিন প্রাপ্তি ও করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় উভয় দেশ কীভাবে আরও কার্যকর পদক্ষেপ নিতে পারে সে বিষয়ে আলোচনা করবেন। পাশাপাশি দুই দেশের মধ্যে বহমান নদীগুলোর পানি ইস্যু, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ এবং মুজিববর্ষ উদযাপনের বিষয় নিয়েও আলোচনা হতে পারে। এ ছাড়া কভিড-১৯ পরবর্তী সময়ে উভয় দেশের পারস্পরিক সহযোগিতা জোরদারসহ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করা নিয়ে আলোচনা করবেন দুই প্রধানমন্ত্রী। এ আলোচনায় বিশেষ গুরুত্ব পাবে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রাপ্তির বিষয়টিও। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৯ সালের অক্টোবরে সরকারি সফরে ভারতে গিয়েছিলেন। আর ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি চলতি বছরের মার্চে মুজিববর্ষ উপলক্ষে একটি ভিডিওবার্তা দিয়েছিলেন। অবশ্য মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তাঁর বাংলাদেশ সফরের কথাও ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর কারণে তা বাতিল হয়ে যায়। তবে উভয় দেশের প্রধানমন্ত্রী করোনা মহামারীতে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করেছেন বলেও জানানো হয় ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে গত ১৪ ডিসেম্বর দেওয়া এক বার্তায়। গত রবিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন জানিয়েছিলেন, বৈঠকে পানি ও সীমান্তসহ বড় বড় যত সমস্যা আছে, সেগুলো বাংলাদেশ উত্থাপন করবে। বেশ কয়েকটি ‘কুইক ইমপেক্ট’ রাখার মতো প্রকল্পেরও উদ্বোধন করা হবে। বৈঠক চলাকালে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ১৯৬৫ সালের আগের পুরনো চিলাহাটি-হলদিবাড়ী রেল সংযোগ পুনরায় উদ্বোধন করা হবে। জানা গেছে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর (সুবর্ণজয়ন্তী) পূর্তি উপলক্ষে আগামী বছর ২৬ মার্চ একটি স্বাধীনতা সড়ক চালু করা হবে। ওই সড়কের ভারতের অংশটি চালু আছে। এতে মেহেরপুর জেলার মুজিবনগরকে যুক্ত করা হবে। এ সড়কটি দুই দেশের মধ্যে জনগণের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানোর ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। এ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আবদুল মোমেন বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্কের সোনালি অধ্যায় বিরাজ করছে। উন্নয়ন ও বন্ধুত্বপূর্ণ এ সম্পর্ক ধরে রাখতে আমরা বদ্ধপরিকর।


আপনার মন্তব্য