শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:২৩

লতিফ সিদ্দিকীর কাছ থেকে উদ্ধার জমিতে হচ্ছে শেখ রাসেল পার্ক

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

লতিফ সিদ্দিকীর কাছ থেকে উদ্ধার জমিতে হচ্ছে শেখ রাসেল পার্ক

সাবেক মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর অবৈধ দখলে থাকা টাঙ্গাইলের সেই ৬৬ শতাংশ জমিতে শিশু পার্ক করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা প্রশাসন। টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন বিভিন্ন স্তরের মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করে পার্কটি বঙ্গবন্ধুর ছোট ছেলে শেখ রাসেলের নামে নামকরণের উদ্যোগ নিয়েছে। এর আগে গত রবিবার টাঙ্গাইল জেলা সদর সড়কের আকুরটাকুর পাড়ায় সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সাবেক সদস্য আবদুল লতিফ সিদ্দিকীর দখলে থাকা প্রায় ৫০ কোটি টাকা মূল্যের দুই বিঘা (৬৬ শতাংশ) জমি উদ্ধার করে জেলা প্রশাসন। এ সময় ওই জমিতে লতিফ সিদ্দিকীর নির্মিত স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। এরপর জমিতে লাল নিশান এবং এটি ‘ক’ তালিকাভুক্ত অর্পিত সম্পত্তি লেখা সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়।

জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি জানান, উদ্ধার করা জমিতে শেখ রাসেলের নামে শিশু পার্ক করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে কিছুদিন পর মতবিনিময় সভা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, আবদুল লতিফ সিদ্দিকী ১৯৭২ সালে সরকারের কাছ থেকে জমিটি ইজারা নেন। ১৯৭৩ সাল পর্যন্ত তিনি ইজারার টাকাও পরিশোধ করেছেন। এরপর দীর্ঘসময় তিনি ইজারার টাকা না দিয়ে সাব-জজ আদালতে মালিকানা দাবি করে মামলা করেন। মামলার রায় লতিফ সিদ্দিকীর পক্ষে যায়। পরে জেলা জজ আদালতে সরকার পক্ষ আপিল করে। সেখানেও লতিফ সিদ্দিকী ডিক্রি পান। পরে সরকার পক্ষ হাই কোর্টে রিভিশন মামলা করলে লতিফ সিদ্দিকী হেরে যান। পরে লতিফ সিদ্দিকী হাই কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে ‘লিভ টু আপিল’ করেন। সেখানে সরকার পক্ষ ডিক্রি পায়। লতিফ সিদ্দিকীকে ওই জমির ওপর তার নির্মিত স্থাপনা অপসারণের জন্য গত ৩১ ডিসেম্বর প্রশাসন নোটিস দেয়। নোটিস পাওয়ার পরও তিনি স্থাপনা অপসারণ না করায় উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে জমি উদ্ধার করা হয়।


আপনার মন্তব্য