শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২৫

করোনাকালের বাংলা নববর্ষ আজ

মোস্তফা মতিহার

করোনাকালের বাংলা নববর্ষ আজ
Google News

আজ পয়লা বৈশাখ। বঙ্গাব্দ ১৪২৮-এর প্রথম দিন। কিন্তু হবে না রমনার বটমূলে ‘এসো হে বৈশাখ’ গান, হবে না চারুকলার মঙ্গল শোভাযাত্রা। মরণঘাতী করোনাভাইরাসের হানায় বন্ধ রাখা হয়েছে সার্বজনীন এই উৎসবের সব ধরনের জনসমাগম। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার সরকারি নির্দেশনার কারণে এবারের বাংলা নববর্ষ বরণে থাকছে না শারীরিক উপস্থিতি। ফলে দ্বিতীয় বারের মতো  করোনাকালের পয়লা বৈশাখ দেখছে বাংলাদেশ।  আয়োজন হবে ভার্চুয়াল বৈশাখী অনুষ্ঠান। জনস্বাস্থ্য ও জনস্বার্থের কথা চিন্তা করে রমনার বটমূল, টিএসসি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ, শিল্পকলা একাডেমি, হাতিরঝিল, বাংলা একাডেমিসহ উৎসবের রঙিন আঙিনাগুলো ঢাকা থাকবে স্বাস্থ্যবিধির চাদরে। আর উদীচী, খেলাঘর, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন, ছায়ানটসহ সামাজিক, সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোও গতবারের মতো এবারও উদযাপন থেকে নিজেদের বিরত রাখছে; আনন্দ আর উদ্দীপনায়।  কোনো আনুষ্ঠানিকতা না থাকার কারণে উৎসবের বর্ণিলতা ধূসর রং ধারণ করলেও ‘এসো হে বৈশাখ এসো এসো’ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এই গানকে হৃদয়ে ধারণ করে আপাদমস্তক বাঙালি হয়ে ওঠার চেষ্টায় বাঙালি স্বপ্ন দেখবে আগামীর রঙিন বৈশাখের। নতুন স্বপ্নের ওপর ভর করে আগামী দিনগুলো যেন হয় আরও রঙিন আরও বর্ণাঢ্য এমন কামনা শিল্প-সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের মানুষদের। গতকাল দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষ ও মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে তিনি গত বছরের মতো এবারও ঘরে বসেই পয়লা বৈশাখ উদযাপন করার আহ্বান জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাস আরও মরণঘাতী হয়ে আবির্ভূত হয়েছে। তাই পয়লা বৈশাখের আনন্দ গত বছরের মতো এবারও ঘরে বসেই উপভোগ করব আমরা। টেলিভিশন চ্যানেলসহ নানা ডিজিটাল মাধ্যমে অনুষ্ঠানমালা প্রচারিত হবে। সে সব অনুষ্ঠান উপভোগ ছাড়াও আমরা নিজেরাও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঘরোয়া পরিবেশে আনন্দ উপভোগ করতে পারি।

এর আগে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত নির্দেশনা অনুসরণপূর্বক জনসমাগম হয় এমন অনুষ্ঠান বাতিল করে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠান আয়োজন করতে হবে। কোনো অবস্থাতেই জনসমাগম করা যাবে না। 

ছায়ানট : শারীরিক উপস্থিতির কোনো আয়োজন না থাকলেও ছায়ানট তাদের ইউটিউব চ্যানেলে স্বল্প পরিসরে বৈশাখ বরণ করবে। এক সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে ছায়ানটের জনসংযোগ বিভাগ জানায়, প্রাথমিকভাবে আমাদের সিদ্ধান্ত ছিল দর্শকশূন্য অবস্থায় অথবা পরিস্থিতি আরও বেশি প্রতিকূল হলে পয়লা বৈশাখ ভোরের অনুষ্ঠান আগেই রেকর্ড করে নেওয়া। সে লক্ষ্যে সম্মেলক দলের নিয়মিত মহড়াও চলছিল। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির ক্রমান্বয় অবনতি এবং সরকারের সতর্কতামূলক বাস্তবিক সিদ্ধান্তসমূহ আমাদের মনে শিল্পীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকির আশঙ্কা গভীরতর করে তোলে। রেকর্ড করা ঘণ্টাব্যাপ্তির অনুষ্ঠানমালা পয়লা বৈশাখের সকাল ৭টায় বাংলাদেশ টেলিভিশন প্রচার করবে। ছায়ানটের ইউটিউব চ্যানেলেও (youtube.com/ChhayanautDigitalPlatform) অনুষ্ঠানটি দেখা যাবে।

চারুকলা অনুষদ : চারুকলা অনুষদ শত শিল্পীর অংশগ্রহণে চারুকলা অনুষদের অভ্যন্তরে তাদের এবারকার মঙ্গল শোভাযাত্রাটি আয়োজিত হওয়ার কথা থাকলেও করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধিতে সেই সিদ্ধান্ত থেকে তারা সরে এসেছে।

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর : এদিকে পয়লা বৈশাখের সকাল ১১টায় মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ফেসবুক পেজে অনলাইনে সরাসরি ‘নববর্ষ বরণ ১৪২৮’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করবেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের অন্যতম ট্রাস্টি সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর। আলোচক থাকবেন লেখক, সাংবাদিক আবুল মোমেন।

ভার্চুয়াল এই আয়োজনে সংগীত পরিবেশন করবেন বুলবুল ইসলাম, অদিতি মহসিন, শারমিন সাথী ইসলাম ময়না ও বিমান চন্দ্র বিশ্বাস। নৃত্য পরিবেশন করবে স্পন্দন, আবৃত্তি পরিবেশন করবেন ইকবাল খোরশেদ জাফর ও অনন্যা লাবণী পুতুল, বাউল গান পরিবেশন করবেন বাউল দেলোয়ার ও সোনিয়া। অনুষ্ঠানটি দেখা যাবে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ফেসবুক পেজে (https://www.facebook.com/liberationwarmuseum.official)।

বাংলাদেশ সংগীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদ : বঙ্গাব্দ ১৪২৮-কে স্বাগত জানাতে ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ সংগীত সংগঠন সমন্বয় পরিষদ। সংগঠনটির ফেসবুক পেজের এই অনলাইন আয়োজনে অংশ নেবেন- শিল্পী রফিকুল আলম, সুজিত মোস্তফা, বিশ্বজিৎ রায়, অনুপমা মুক্তি ও শাহনাজ বেলী। সকাল ৮টায় শুরু হবে অনুষ্ঠান। দেখা যাবে- (https://www.facebook.com/groups/2635285070125355)।

এই বিভাগের আরও খবর