শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ এপ্রিল, ২০২১ ২৩:২৪

গত বছরের চেয়ে এবারের সংকট আরও গভীর

-ড. নাজনীন আহমেদ

গত বছরের চেয়ে এবারের সংকট আরও গভীর

অর্থনীতিবিদ ও বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) সিনিয়র রিসার্চ ফেলো ড. নাজনীন আহমেদ বলেছেন, গত বছরের লকডাউনের সময় যে সংকট ছিল এবারের সংকটটা তার চেয়েও গভীর। তখন মানুষের হাতে কিছুটা হলেও পয়সা ছিল। আর টানা প্রায় এক বছর ধরে কাজকর্ম অব্যাহতভাবে কমে যাওয়ায় মানুষের আয় কমে গেছে। মানুষের হাতে তেমন কোনো সঞ্চয়ও নেই। আগের বছর সঞ্চয় ভেঙে ফেলেছে। ফলে এ বছর নিম্ন আয়ের মানুষ ও দিনমজুরদের সংকট আরও বেড়েছে। গতকাল তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, আমি আগেও বলেছিলাম সাত দিনের হলেও তা হতে হবে কঠোর লকডাউন। কারফিউর মতো লকডাউন দিতে হবে। তবে তার আগে গরিব মানুষের খাবার নিশ্চিত করতে হবে। অন্যথায় লকডাউন দিয়ে শুধু অর্থনীতির ক্ষতিই হবে। গরিব মানুষের ভোগান্তি বাড়বে। এ সাত দিনের লকডাউনে হয়তো বড় কোনো উপকার হবে না। তবে সংক্রমণ কমানো যাবে। আর এখন সেটাই দরকার। একই সঙ্গে আমাদের স্বাস্থ্যবিধি শতভাগ মানতে হবে। সেখানে কোনো ঢিলেঢালাভাব দেখানো যাবে না। বইমেলা বন্ধ করতে হবে। অন্য যেসব উৎসব, খেলাধুলা সেগুলোও বন্ধ করতে হবে। গরিব মানুষের খাবার নিশ্চিত করতে হবে। যেসব কলকারখানা চালু থাকবে তার শ্রমিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে। কিন্তু এবারের লকডাউনটাও অনেকটা ঢিলেঢালা। মানুষের মধ্যেও সচেতনতার অভাব। অথচ প্রতিদিনই সংক্রমণের হার বাড়ছে। মৃত্যুও বাড়ছে। আমার মতে সংক্রমণ কমাতে হলে সকল প্রকার সভা-সমাবেশ, জনসমাগম বন্ধ করে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মানা নিশ্চিত করতে হবে। সংক্রমণ প্রতিরোধমূলক মাস্ক সাবান ইত্যাদি ব্যাপকভাবে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিতরণ করতে হবে। এ-সংক্রান্ত প্রচার জোরদার করতে হবে। স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিদের সহযোগিতায় গ্রামপর্যায় পর্যন্ত সচেতনতা বৃদ্ধি কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। সর্বোপরি স্বাস্থ্যবিধি মানা কঠোরভাবে ইমপ্লিমেন্ট করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তা নিতে হবে। ড. নাজনীন আহমেদ বলেন, অর্থনীতি ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সরকারকে অনেক কঠোর হতে হবে। এতে কিছু মানুষের ভোগান্তি হবে। সেটা লাঘবের জন্যও সরকারকেই ব্যবস্থা নিতে হবে। চলমান এ লকডাউনের সময় দরিদ্র মানুষের খাবার নিশ্চিত করতে হবে। মানুষের হাতে নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবর