বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

মা-বাবাসহ ১৫ দিন এক বাসায় থাকবে জাপানি দুই শিশু

নিজস্ব প্রতিবেদক

সেই দুই জাপানি শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনাকে বাবা-মাসহ রাজধানীর গুলশানের একটি বাসায় ১৫ দিন রাখতে নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। আদেশে আদালত বলেছে, ফ্ল্যাটের ভাড়া উভয় পক্ষ বহন করবে। একই সঙ্গে তাদের তদারকিতে সমাজসেবা অধিদফতরের ঢাকার উপ-পরিচালককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ওই বাসার নিরাপত্তা নিশ্চিতে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনারকেও নির্দেশ দিয়েছে আদালত। গতকাল দুই শিশু ও তাদের বাবা-মায়ের মতামত নেওয়ার পর বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাই কোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর এই মামলার পরবর্তী আদেশের জন্য দিন রেখেছে আদালত। যদিও একই বাসায় শিশুদের বাবার রাতযাপনে আপত্তি জানিয়েছিলেন শিশুদের মায়ের পক্ষের আইনজীবী। আদালত বলেছে, ‘আমরা চাই শিশুরা পারিবারিক পরিবেশে থাকুক।’ আদালতে শিশুদের জাপানি মায়ের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ শিশির মনির। শিশুদের বাংলাদেশি বাবার পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট ফাওজিয়া করিম ফিরোজ। এর আগে গতকাল দুপুরে দুই জাপানি শিশু জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনা বাবার কাছে, নাকি মায়ের কাছে থাকতে চায়- এ বিষয়ে শিশুদের সঙ্গে একান্তে কথা বলে হাই কোর্ট। বিচারপতিদের খাস-কামরায় প্রায় আধঘণ্টা শিশুদের সঙ্গে কথা বলে আদালত। দুই মেয়ে জেসমিন মালিকা ও লাইলা লিনাকে আদালতে হাজির করার নির্দেশনা চেয়ে ১৯ আগস্ট হাই কোর্টে হেবিয়াস কর্পাস রিট করেন জাপানি চিকিৎসক নাকানো এরিকো (৪৬)। রিটে মেয়েদের নিজের জিম্মায় নেওয়ার নির্দেশনা চান ওই নারী। ওই দিন জাপানি দুই শিশু এবং তাদের বাবা শরীফ ইমরানকে এক মাসের জন্য দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেয় হাই কোর্ট। একই সঙ্গে দুই শিশুকে ৩১ আগস্ট আদালতে হাজির করার নির্দেশ দেয়। সঙ্গে তাদের বাবা ও ফুফুকে নিয়ে আসতে বলা হয়। রাজধানীর গুলশান ও আদাবর থানার ওসিকে এই নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়। কিন্তু এর মধ্যেই ২২ আগস্ট ১০ ও ১১ বছর বয়সী মেয়ে দুটিকে হেফাজতে নেয় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এ বিষয়টি ২৩ আগস্ট সকালে হাই কোর্টের নজরে আনেন তাদের বাবার আইনজীবী ফাওজিয়া করিম। আদালত দুই শিশুকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত তেজগাঁওয়ের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে উন্নত পরিবেশে রাখার নির্দেশ দেয়। একই সঙ্গে আদালত ওই দিন উভয় পক্ষের আইনজীবীদের ৩১ আগস্টের মধ্যে বিষয়টি সমাধান করতে ভূমিকা রাখতে বলেছিল। তবে সোমবার রাত পর্যন্ত আইনজীবীদের উপস্থিতিতে কয়েক দফা বৈঠক করেও দুই পক্ষ কোনো সমঝোতায় আসতে পারেনি।

সর্বশেষ খবর