সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা

শেখ হাসিনাকে ওয়াশিংটনে উষ্ণ অভ্যর্থনা

লাবলু আনসার, যুুক্তরাষ্ট্র

শেখ হাসিনাকে ওয়াশিংটনে উষ্ণ অভ্যর্থনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ওয়াশিংটনে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা উষ্ণ অভ্যর্থনা জানিয়েছেন। স্থানীয় সময় শনিবার সকাল ১০টায় নিউইয়র্ক থেকে ভার্জিনিয়ায় ডালাস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছলে যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম এবং তার স্ত্রী জেসমিন ইসলাম তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। দলীয় সভানেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানাতে আওয়ামী লীগের ওয়াশিংটন মেট্রো এলাকার সর্বস্তরের নেতা-কর্মী বিমানবন্দরে উপস্থিত হন। নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশন ও উচ্চ পর্যায়ের পার্শ্ব-আলোচনায় যোগদানের মাধ্যমে সপ্তাহব্যাপী সরকারি সফর সমাপ্ত করে শেখ হাসিনা ওয়াশিংটন আসেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম হেলাল জানান, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ভিভিআইপি চার্টার্ড ফ্লাইট প্রধানমন্ত্রী তাঁর সফরসঙ্গীদের নিয়ে নিউইয়র্ক থেকে সকাল সোয়া ৯টায় ওয়াশিংটন ডিসির উদ্দেশে জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন। জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাবাব ফাতিমা জে এফ কে বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান।

৩০ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন থেকে তাঁর ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার কথা। এর আগে নিউইয়র্কে প্রেস ব্রিফিংকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন জানিয়েছেন, হোটেল কক্ষে বসেই দৈনন্দিন কাজকর্ম সারছেন প্রধানমন্ত্রী। ওয়াশিংটনে ব্যক্তিগত সফরকালেও সবকিছু অব্যাহত থাকবে ভার্চুয়ালে। এদিকে ডালাস ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে স্বাগত জানাতে স্লোগানে মুখর নেতৃবৃন্দের মধ্যে ছিলেন মেট্রো ওয়াশিংটন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাদেক খান, সিনিয়র সহসভাপতি শিব্বীর আহমেদ, সহসভাপতি জি আই রাসেল, জুয়েল বড়ুয়া, নুরুল আমিন নুরু, জীবক বড়ুয়া, আক্তার  হোসেন এবং নাজমুল হাসান, নির্বাহী সদস্য জেবা রাসেল, রোমিও হক, সাঈদ আলী, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবুল শিকদার, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মিরাজ খান, সহসভাপতি মোহাম্মদ সিরাজ, ওয়াশিংটন যুবলীগের সভাপতি আরশাদ আলী বিজয়, মীর রফিক, জাহিদ হোসেন, আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরামের সেক্রেটারি আবু সরকার, সহসভাপতি হাসনাত সানি, ভার্জিনিয়া আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আমানউল্লাহ আমান প্রমুখ। নিউইয়র্কে অবস্থানকালে শেখ হাসিনা ২৪ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে ভাষণ দেন। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পদাঙ্ক অনুসরণ করে বাংলায় ভাষণ প্রদান করেন। ১৯  থেকে ২৪ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে অবস্থানকালে তিনি বেশ কয়েকটি উচ্চ পর্যায়ের ও রুদ্ধদ্বার বৈঠকে যোগ দেন এবং বিভিন্ন সরকার, রাষ্ট্র ও সংগঠনের প্রধানের সঙ্গে কয়েকটি দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বসেন। প্রধানমন্ত্রী ২০ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর সম্মানে জাতিসংঘ সদর দফতরের নর্থ লনের ইউএন গার্ডেনে একটি চারাগাছ রোপণ করেন। জাতিসংঘ বাগানে বিশ্বের কোনো নেতা স্মরণে এই প্রথম একটি বৃক্ষ রোপণ করা হলো। বৃক্ষের পাশেই একটি বেঞ্চও রাখা হয়েছে সেই গাছের ছায়ায় পরিশ্রান্তরা একটু বিশ্রাম গ্রহণের অভিপ্রায়ে। ১ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা প্রত্যাবর্তনের কথা।

সর্বশেষ খবর