শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ নভেম্বর, ২০১৯ ১২:৪৩
আপডেট : ২০ নভেম্বর, ২০১৯ ১৫:২৯

ভারতে এটিএম প্রতারণা : বাংলাদেশিসহ ৪ বিদেশি গ্রেফতার

দীপক দেবনাথ, কলকাতা :

ভারতে এটিএম প্রতারণা : বাংলাদেশিসহ ৪ বিদেশি গ্রেফতার

পশ্চিমবঙ্গে আন্তর্জাতিক এটিএম প্রতারণা চক্রের হদিস পাওয়া গেছে। গ্রেফতার চারজনই বিদেশি নাগরিক। দুইজন তুরস্কের বাসিন্দা, বাকি দুইজন বাংলাদেশি। এটিএম (অটোমেটেড টেলার মেশিন)-এর তথ্য হাতিয়ে কার্ড ক্লোন করে ত্রিপুরা ও আসামের বিভিন্ন ব্যাংক থেকে বিশেষ করে ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক ‘স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া’ (এসবিআই)-এর বিভিন্ন শাখা থেকে কয়েক লাখ রুপি প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। আটক দুই তুরস্কের বাসিন্দা হলেন হাকান জানবুরকান এবং ফতেহ আলদেমির। দুই বাংলাদেশি হলেন মহম্মদ হান্নান ও মহম্মদ রফিকুল ইসলাম। 

গোপন সূত্রে খবর পেয়েই মঙ্গলবার উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার ডানলপের নিকটে বিটি রোডের ধারে এল-৯ বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় অভিযান চালায় স্থানীয় বেলঘড়িয়া থানার পুলিশ। এরপর একটি আবাসন থেকেই ওই চার বিদেশিকে আটক করে বেলঘড়িয়া থানার পুলিশ। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে হিসাব বহির্ভূত ডলার ও ভারতীয় রুপি, এটিএম কার্ড, ল্যাপটপ, বিভিন্ন ব্যাংকের চেক। আটক ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে আসাম ও ত্রিপুরা রাজ্য থেকে এসেছে তদন্তকারী দল। আটক চার বিদেশি নাগরিককেই বুধবার ব্যারাকপুর আদালতে তোলা হবে। এরপর তদন্তের স্বার্থে আটক চার বিদেশি ব্যক্তিকেই ত্রিপুরার নিয়ে যাওয়া হতে পারে। 

ত্রিপুরা পুলিশের সাইবার ক্রাইম ব্রাঞ্চের পুলিশ সুপার শর্মিষ্টা চক্রবর্তী জানান ‘আমাদের পক্ষ থেকে প্রদান করা নির্দিষ্ট তথ্য প্রদানের ওপর ভিত্তি করেই পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ দুইজন তুরস্ক এবং দুই বাংলাদেশি নাগরিককে আটক করেছে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে দুই বাংলাদেশি নাগরিকের সহায়তা নিয়ে তুরস্কের দুই নাগরিক এটিএম কার্ড ক্লোন করে গত আগস্ট মাসে গুয়াহাটি থেকে কয়েক লাখ রুপি হাতিয়ে নিয়েছে। আগরতলাতেও ঠিক একই কায়দায় প্রতারণা করা হয়েছে।’ 

এসবিআই’এর আঞ্চলিক ম্যানেজার দিব্যেন্দু চৌধুরী জানান ‘আগরতলায় এসবিআই’এর বিভিন্ন শাখায় গ্রাহকদের কাছ থেকে এটিএম সম্পর্কিত প্রায় ৪৫ টি অভিযোগ জমা পড়ে। তাদের সকলেরই অভিযোগ এটিএম হ্যাক করেই রুপি খোয়া গেছে। এরপর ব্যাংকের পক্ষ থেকে ত্রিপুরা পুলিশকে জানানো হয়। পরে তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে প্রতারণা চক্রের দলটি পশ্চিমবঙ্গে গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে। এরপর পশ্চিমবঙ্গ পুলিশকে বিষয়টি জানায় ত্রিপুরা পুলিশের কর্মকর্তারা। বেলঘড়িয়া থানা সূত্রে খবর গত ১৪ নভেম্বর বিটি রোডের ধারে ওই আবাসনটি ভাড়া নেয় তারা।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য