শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ মে, ২০২০ ২০:০১

৮৪ বছরে মারা গেল হিটলারের সেই কুমির

অনলাইন ডেস্ক

৮৪ বছরে মারা গেল হিটলারের সেই কুমির

১৯৪৩ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় বার্লিন চিড়িয়াখানায় বোমা বর্ষণেও বেঁচে যাওয়া সেই কুমিরটির মৃত্যু হয়েছে। কথিত আছে, কুমিরটি জার্মানির সাবেক চ্যান্সেলর অ্যাডলফ হিটলারের সংগ্রহশালায়ও এক সময় ছিল। মৃত্যুর সময় কুমিরটির বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

জানা গেছে, মস্কো চিড়িয়াখানায় ‘স্যাটার্ন’ নামের সরীসৃপ প্রাণীটির মৃত্যু হয়েছে। এই ধরণের কুমির সাধারণত, ৫০ বছরের বেশি কমই বাঁচে। কুমিরটির মৃত্যুকে ‘একটা যুগের শেষ’ হিসেবে উল্লেখ করেছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। যুক্তরাষ্ট্রে জন্ম হওয়া কুমিরটি ১৯৩৬ সালে বার্লিন চিড়িয়াখানাকে উপহার দেওয়া হয়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালে ১৯৪৩ সালে বোমা বর্ষণের সময় কয়েকটি সঙ্গী মারা পড়লেও সেখান থেকে বেড়িয়ে যায় কুমিরটি।

১৯৪৬ সালে বছর পর খোঁজে পেয়ে সেটিকে সোভিয়েত কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করে ব্রিটিশ সৈনিকরা। মাঝের তিনটি বছর কুমিরটি কোথায় ছিল তা ‘এখনও রহস্য’ বলে জানিয়েছে চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষ। স্যাটার্ন নামের কুমিরটিকে ১৯৪৬ সালের জুলাইয়ে যখন মস্কোতে আনা হয়, তখন গুজব উঠে, এটি জার্মানির তৎকালীন চ্যান্সেলর অ্যাডলফ হিটলারের ব্যক্তিগত সংগ্রহের অংশ ছিল।

বাছাই করা খাবার খাওয়া এবং ব্রাশ দিয়ে শরীর ম্যাজাজ করা পছন্দ করতো কুমরটি। এটিকে এতোদিন রাখতে পারাটাকে চিড়িয়াখানার জন্য ‘সম্মান’ হিসেবে উল্লেখ করেছে মস্কো চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। তাদের ভাষ্য, নাৎসি বাহিনীর বিরুদ্ধে বিজয়ের পর এটি এসেছিল। আমাদের সঙ্গে ওই বিজয়ের ৭৫তম বার্ষিকীও উদযাপন করেছে এটি। স্যাটার্নের সঙ্গে বছরগুলো অসাধারণ ছিল। আমাদের বিশ্বাস, আমরাও তাকে হতাশ করিনি।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর