শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ এপ্রিল, ২০২১ ০৮:৩৫
আপডেট : ১৫ এপ্রিল, ২০২১ ০৮:৩৭
প্রিন্ট করুন printer

‘দীর্ঘায়িত আলোচনা ইরানের জন্য ক্ষতিকর’

অনলাইন ডেস্ক

‘দীর্ঘায়িত আলোচনা ইরানের জন্য ক্ষতিকর’

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতাকে পুনরুজ্জীবিত করার আলোচনাকে দীর্ঘায়িত করার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ইরান ওই সমঝোতায় দেওয়া নিজের প্রতিশ্রুতিতে কেবল তখনই পুরোপুরি ফিরে যাবে যখন আমেরিকার সব নিষেধাজ্ঞা কার্যকরভাবে প্রত্যাহার করা হবে।

আয়াতুল্লাহ খামেনেয়ী বুধবার সন্ধ্যায় কুরআন তেলাওয়াতের এক মাহফিলে ভার্চুয়ালি দেয়া ভাষণে এ সতর্কতা ব্যক্ত করেন। তিনি পাশ্চাত্যের সঙ্গে আলোচনায় অংশগ্রহণকারী ইরানি কূটনীতিকদের উদ্দেশ করে বলেন, এই আলোচনার ব্যাপারে দেশের নীতি নির্ধারিত রয়েছে। পাশ্চাত্য যদি আলোচনার নামে সময় ক্ষেপণ করতে চায় তাহলে সে আলোচনা থেকে সরে আসতে হবে। দীর্ঘায়িত আলোচনা ইরানের জন্য ক্ষতিকর।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, “আমেরিকা ইরানের সঙ্গে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ আলোচনায় এজন্য বসতে চায় না যে, তারা সত্য মেনে নেবে। তারা বরং তাদের বাতিল ও মিথ্যা দাবি ইরানের ওপর চাপিয়ে দিতে আলোচনায় বসতে চায়। আর সে আলোচনা ইরানের জন্য ক্ষতিকর।”

আয়াতুল্লাহ খামেনেয়ী বলেন, আমেরিকা ও ইউরোপীয় দেশগুলো বহুবার তাদের প্রতিশ্রুতি লঙ্ঘন করেছে। ইউরোপীয় আলোচকরাও ব্যক্তিগত আলোচনায় ইরানের কাছে তা স্বীকারও করেন যদিও তাদের রাষ্ট্রীয় নীতি আমেরিকার তাবেদারি করা।  কাজেই তাদেরকে আগে নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি প্রত্যাহার করতে হবে।  তা না হলে ইরান তার প্রতিশ্রুতি পুরোপুরি বাস্তবায়নের কাজে ফিরে যাবে না।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, মার্কিনীদের বেশিরভাগ প্রস্তাব এত বেশি দাম্ভিক ও অপমানজনক যে, সেগুলোর দিকে তাকানোও সম্ভব নয়। তিনি পাশ্চাত্যের সঙ্গে আলোচনায় ইরানি প্রতিনিধিদলের সাফল্য কামনা করেন।

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর