শিরোনাম
প্রকাশ : ২৯ জুলাই, ২০২১ ১২:৫৮
আপডেট : ২৯ জুলাই, ২০২১ ১৩:০৮
প্রিন্ট করুন printer

প্রেমিকাকে হত্যার পর মরদেহের ওপর যা লিখে গেলেন তিনি

অনলাইন ডেস্ক

প্রেমিকাকে হত্যার পর মরদেহের ওপর যা লিখে গেলেন তিনি
ড্যানিয়েল স্মিথ (মাঝে-ইনসেটে)
Google News

প্রেমিকাকে নৃশংসভাবে হত্যা করল প্রেমিক। ছুরি দিয়ে খুনের পর প্রেমিকার শরীরে চিহ্নও রেখে যায় হত্যাকারী। প্রেমিকার মরদেহে একটি বাক্য লিখে যান তিনি।

ব্রিটেনের বাসিন্দা ইমোজেন বোহাজুককে গ্রেটার ম্যানচেস্টারের ওল্ডেমে তার ফ্ল্যাটেই মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। তার শরীরে ছুরির বেশকয়েকটি আঘাত দেখতে পায় পুলিশ। বিছানায় পড়েছিল তার মরদেহ। পাশে সাজান ছিল তার পছন্দের সুগন্ধী ও সফট টয়।

তদন্তে নেমে ইমোজেনের প্রেমিক ড্যানিয়েল স্মিথকে গ্রেফতার করে পুলিশ। জানা গেছে, বিগত কিছুদিন ধরে তিনি ইমোজেনের ব্যাংকের কার্ড ব্যবহার করছিলেন। অ্যাকাউন্ট ফাঁকা করার দুই সপ্তাহ আগেই তিনি ইমোজেনকে হত্যা করেন।

হত্যার অপরাধে স্মিথকে কমপক্ষে ১৭ বছর কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় ম্যানচেস্টার ক্রাউন আদালত। পুলিশি তদন্ত ও আদাতের শুনানির সময় জানা যায়, কীভাবে নিজের প্রেমিকাকে হত্যা করেছিলেন স্মিথ।

জানা গেছে, প্রায়ই দু’জনের মধ্যে ঝগড়া হত। স্মিথের খারাপ ও হিংসাত্মক আচরণের বিষয়ে নিজের বন্ধুদেরও কয়েকবার জানিয়েছিলেন ইমোজেন। কিন্তু মার্চ মাসে টাকাপয়সার লেনদেন নিয়ে যুগলের মধ্যে ঝগড়া হয়। সেই বিবাদ ধীরে ধীরে ইমোজেনের মৃত্যুর কারণ হয়ে ওঠে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে জানা যায়, ইমোজেনের মুখ, চোয়াল, মাথার খুলি এবং ঘাড়ে আঘাত করা হয়েছিল। এমনকি শ্বাসরোধের চিহ্নও উঠে আসে রিপোর্টে।

আদালতে আইনজীবী জানান, প্রথমে ইমোজেনকে মারধর করেন স্মিথ। তারপর তার গলাটিপে শ্বাসরোধ করেন। সবশেষে ছুরি নিয়ে হামলা চালান।

অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই মৃত্যু হয় ইমোজেনের। এরপর নেলপলিশ দিয়ে মৃতদেহের ওপর স্মিথ লেখেন ‘সেটা আমি ছিলাম’। অর্থাৎ স্মিথ এটাই বোঝাতে চেয়েছিলেন যে খুন তিনিই করেছেন। তারপর মরদেহ বিছানায় শুইয়ে তার ওপরে অদ্ভূত একটি নকশা তৈরি করে রেখে যান তিনি। সূত্র: দ্য সান

বিডি প্রতিদিন/কালাম

এই বিভাগের আরও খবর