শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০২

লাদেন হত্যা মিশন ২০১১

পাকিস্তানকে ওবামা জড়াননি ‘ওপেন সিক্রেট’র কারণে

প্রতিদিন ডেস্ক

আল-কায়েদাপ্রধান ওসামা বিন লাদেনকে হত্যার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে যে অভিযান চালায় তাতে ওই দেশটির সামরিক বাহিনী বা গোয়েন্দা সংস্থার কোনো সহায়তা নেওয়া হয়নি। এমনকি হত্যা অভিযান সম্পর্কে ওদের কিছুই জানানো হয়নি। কারণ এক ‘ওপেন সিক্রেট’। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ‘আ প্রমিজড ল্যান্ড’ নামে নতুন যে বই লিখেছেন তাতে বলা হয়, পাকিস্তানি মিলিটারি বিশেষত তাদের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর কিছু কিছু লোক তালেবান, এমনকি আল-কায়েদার সঙ্গে যে যোগাযোগ রক্ষা করেন তা এক ‘ওপেন সিক্রেট’ বিষয়। ওবামা লিখেছেন, কীভাবে অ্যাবোটাবাদ সেনানিবাসের উপকণ্ঠে লাদেনের নিরাপদ আস্তানায় আঘাত হানা যায় ভাবছিল সিআইএ। ঠিক করা হয়, যে পরিকল্পনাই নেওয়া হোক না কেন তার বিন্দুবিসর্গও পাকিস্তানকে জানানো চলবে না। গোপনীয়তা ছিল কঠোর; মার্কিন কেন্দ্রীয় সরকারের খুব অল্প কজন জানতেন কী করা হবে। ওবামা অভিযানে সম্মতিদানের আগের দিন শীর্ষ কর্মকর্তাদের বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন বলেন, সাফল্যের সম্ভাবনা ৫১-৪৯ মাত্র। ‘লাদেন ওই বাড়িতে আছেন, এটা শতভাগ নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত সিদ্ধান্ত দেবেন না’ পরামর্শ দিয়েছিলেন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ২০১১ সালের ২ মে মার্কিন কমান্ডো অভিযানে প্রাণ গেল লাদেনের। এবার ওবামার দুশ্চিন্তা শুরু। দীর্ঘকালের দোস্ত পাকিস্তান কি রেগে আছে? ফোন করলেন প্রেসিডেন্ট আসিফ আলী জারদারির কাছে। পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট অভিনন্দন জানালেন ওবামাকে। আল-কায়েদার সমর্থনপুষ্ট চরমপন্থি কর্তৃক তার স্ত্রী বেনজির ভুট্টোকে হত্যার কথা মনে পড়েছিল জারদারির। ওবামা লিখেছেন, জারদারি বললেন, পাকিস্তানের সম্মতি না নিয়ে তার মাটিতে কমান্ডো অভিযানের পরিণতিতে যা-ই ঘটুক, লাদেন হত্যার সংবাদ একটি শুভ সংবাদ।


আপনার মন্তব্য