Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:০৯

এবার অন্তর্বাসে সোনা পাচার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

এবার অন্তর্বাসে সোনা পাচার

দুবাই থেকে কার্টনে ভরে ৪টি প্যাকেটে ৩২টি অন্তর্বাসের ভিতর সোনার ৭৬২টি দণ্ড পাচার করতে গিয়ে রবিউল  হোসেন নামে এক ব্যক্তি আটক হয়েছেন।

গতকাল সকাল সাড়ে ৭টায় বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলী এলাকার রবিউল  হোসেন অন্তর্বাসের ধাতব দণ্ডে সোনার স্টিকের ওপর সিলভার রঙের প্রলেপ দিয়ে নিয়ে এসেছিলেন। কাস্টম হাউসের সহকারী কমিশনার মাহবুবুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই ফ্লাইটের যাত্রীদের ওপর নজরদারি রাখা  হয়েছিল। স্ক্যানিংয়ের সময় একটি কার্টনে সন্দেহজনক কিছু শনাক্ত হয়। এরপর কার্টন খুলে ৪ প্যাকেটে ৩২টি অন্তর্বাস পাওয়া যায়। প্রতিটিতে দুইটি করে ধাতব স্টিক ছিল, যেগুলো সোনার তৈরি হলেও এর ওপরে সিলভার কালারের প্রলেপ দেওয়া ছিল।

আরও ৪৫টি বার উদ্ধার : চট্টগ্রাম শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ওমান ফেরত যাত্রী গিয়াস উদ্দিনের কাছ থেকে প্রায় ২ কোটি টাকা মূল্যের সোয়া পাঁচ কেজি ওজনের সোনার ৪৫টি বার উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মাসকট আসা ইউএস বাংলার একটি ফ্লাইটের যাত্রী থেকে সোনাগুলো উদ্ধার করে  বিমানবন্দর কাস্টমস।

কাস্টমসের সহকারী কমিশনার মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাসকট থেকে আসা ইউএস বাংলার একটি ফ্লাইট থেকে সন্দেহজনকভাবে গিয়াস উদ্দিনকে আটক করা হয়। ফ্লাইট পৌঁছানোর পর যাত্রীরা নামার আগেই আমরা সেখানে যাই। তার সঙ্গে থাকা ব্যাগে তল্লাশি চালিয়ে সোনার ৪৫টি বার পাওয়া যায়। বারগুলোর ওজন পাঁচ কেজি ২৪৮ গ্রাম, যার আনুমানিক বাজার মূল্য সোয়া ২ কোটি টাকা। গিয়াসকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।’


আপনার মন্তব্য