Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৮ মে, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৭ মে, ২০১৯ ২২:৫১

মিয়ানমারে মুক্তি পেলেন সেই দুই সাংবাদিক

প্রতিদিন ডেস্ক

মিয়ানমারে মুক্তি পেলেন সেই দুই সাংবাদিক

মিয়ানমারে রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা আইন ভাঙার অভিযোগে দ-িত রয়টার্সের দুই সাংবাদিক ৫১২ দিন কারাগারে কাটানোর পর মুক্তি পেয়েছেন। রাজধানী ইয়াংগুনের ইনসেইন কারাগার থেকে গতকাল সকালে মুক্ত হয়ে বেরিয়ে আসেন সাংবাদিক ওয়া  লোন (৩৩) ও কিয়াও সোয়ে ওই (২৯)। রোহিঙ্গা নিপীড়নের তথ্য সংগ্রহের সময় গ্রেফতার এই দুই সাংবাদিক বরাবরই নিজেদের নির্দোষ দাবি করে এসেছেন। জজ আদালত রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে সাত বছরের সাজা দেওয়ার পর হাই কোর্ট এবং আপিল বিভাগেও তা বহাল থাকে। আপিল বিভাগের ওই রায় আসার মাত্র দুই সপ্তাহের মাথায় দুই সাংবাদিকের মুক্তির খবর এল। রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রতিবছর বর্ষবরণের মওসুমে মিয়ানমারে প্রেসিডেন্টের ক্ষমায় বিপুলসংখ্যক বন্দিকে মুক্তি দেওয়া হয়। এর আওতায় কয়েক হাজার বন্দির সঙ্গে সাংবাদিক ওয়া লোন এবং কিয়াও  সোয়ে ওউকেও সরকার মুক্তি দিয়েছে। ২০১৬ সালে রয়টার্সে  যোগ দেওয়া সাংবাদিক ওয়া  লোন রাখাইন রাজ্যে  রোহিঙ্গা সঙ্কটসহ বিভিন্ন ঘটনার সংবাদ প্রকাশ করেছেন। আর কিয়াও  সোয়ে ওউ গতবছর সেপ্টেম্বর থেকে রয়টার্সের প্রতিবেদক হিসেবে কাজ করে আসছিলেন। ২০১৭ সালের ১২ ডিসেম্বর তাদের গ্রেফতার করা হয়। বলা হয়, রাখাইনের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে গোপন নথিপত্র ছিল তাদের কাছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্রেফতার হওয়ার আগে ওয়া লোন এবং কিয়াও  সোয়ে ওউ রাখাইনের সেনা অভিযানের সময় এক গ্রামে ১০ রোহিঙ্গাকে হত্যা করে লাশ পুঁতে ফেলার একটি ঘটনা নিয়ে অনুসন্ধান করছিলেন। নিম্ন আদালতে দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশে বলা হয়, পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের অধীনে অভিযোগ এনেছে। তারা জাতীয় নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলার উদ্দেশ্য নিয়ে সামরিক বাহিনীর কর্মকা  সম্পর্কে স্পর্শকাতর তথ্য ও নথি সংগ্রহ করেছেন। সাহসী সাংবাদিকতার জন্য ওয়া লোন এবং কিয়াও সোয়ে ওউকে চলতি মাসের শুরুতে সাংবাদিকতার সর্বোচ্চ পুরস্কার পুলিৎজার দেওয়া হয়।


আপনার মন্তব্য