শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৫৯

হোটেলের পরিবেশ অস্বাস্থ্যকর

কোয়ারেন্টাইনে দুর্ভোগের শেষ নেই প্রবাসীদের

শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট

সিলেটে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন নিয়ে নানারকম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে যুক্তরাজ্য-ফেরত প্রবাসীদের। সরকার সাত দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশ দিলেও সিলেটে তা বাড়িয়ে ১০ দিন করা হয়েছে। কোনো ঘোষণা ছাড়া কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ তিন দিন বাড়িয়ে দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন প্রবাসীরা। এ ছাড়া কোয়ারেন্টাইনের জন্য নির্ধারিত অনেক হোটেলের অভ্যন্তরীণ অবস্থা নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর বলেও অভিযোগ প্রবাসীদের। গত ২৫ জানুয়ারি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ফ্লাইটে সিলেটে আসেন ১৪৩ জন প্রবাসী। হিসাব অনুযায়ী এক সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইন শেষে গতকাল সকালে তারা নিজ নিজ বাসাবাড়িতে চলে যাওয়ার কথা। কিন্তু গত রবিবার রাতে তাদের জানানো হয় করোনা পরীক্ষার নমুনা প্রদান ও রিপোর্ট আসার পর তাদের কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হবে।  কোয়ারেন্টাইনের নির্ধারিত এক সপ্তাহের মধ্যে নমুনা সংগ্রহ না করায় প্রবাসীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। এ নিয়ে কয়েকটি হোটেলে তারা উত্তেজনাও দেখান। এ অবস্থায় গতকাল দুপুর থেকে কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীদের নমুনা সংগ্রহ শুরু করেন স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন। বিকালে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে পাঠানো হয় নমুনা। পরীক্ষায় যাদের রিপোর্ট নেগেটিভ আসবে তারা কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া পাবেন আগামীকাল বুধবার। আর কারও রিপোর্ট পজিটিভ এলে তাকে পাঠানো হবে খাদিমস্থ আইসোলেশন সেন্টারে। অর্থাৎ করোনা নেগেটিভ আসা প্রবাসীদের এক সপ্তাহের পরিবর্তে দশম দিনে হোটেল থেকে ছাড়া পেতে হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্য অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান জানান, দেশে ফেরার সাত দিন পর প্রবাসীদের করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। যাদের রিপোর্ট নেগেটিভ আসবে তাদের কোয়ারেন্টাইন থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে।

সাত দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের সরকারি নির্দেশনা থাকলেও প্রবাসীদের কেন ১০ দিন থাকতে হচ্ছে- এমন প্রশ্নের জবাবে ডা. আনিসুর রহমান বলেন, স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশনা অনুযায়ী সপ্তম দিনে নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। গতকাল নমুনা সংগ্রহ করে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। আগামীকাল (আজ মঙ্গলবার) নমুনা পরীক্ষা হবে এবং বুধবার রিপোর্ট পাওয়ার পর কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রবাসীদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিকে কোয়ারেন্টাইনের জন্য নির্ধারিত কিছু হোটেলের পরিবেশ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন প্রবাসীরা। হোটেল অনুরাগে কোয়ারেন্টাইনে থাকা নগরীর সাদিপুরের বাসিন্দা ওয়াহিদুর রহমান হোটেলের পরিবেশ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তার আত্মীয়দের কাছে পাঠানো ছবি ও ভিডিওতে দেখা গেছে হোটেলের রুম, বাথরুম ও বারান্দার পরিবেশ নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর। এ অবস্থায়ই ক্যান্সার আক্রান্ত স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে থাকতে হচ্ছে তাকে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর