শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৪৯

অষ্টম কলাম

চীনে পানি দিয়ে টিকা বানানোর হোতা গ্রেফতার

প্রতিদিন ডেস্ক

চীনে করোনাভাইরাস টিকার নামে স্যালাইনের দ্রবণ ও পানি গছিয়ে দিয়ে লাখ লাখ ডলার হাতিয়ে নেওয়ার এক ঘটনায় একটি প্রতারক দলের নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কং নামের ওই ব্যক্তি আসল টিকা কী করে প্যাকেটজাত করতে হয় সে বিষয়ে পড়াশোনা করে নিজের বানানো দ্রবণ দিয়ে ৫৮ হাজারের বেশি জাল টিকা তৈরি করেছিলেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

তার বানানো টিকার একটি ব্যাচ বিদেশে পাচার হলেও কোন দেশে সেগুলো গিয়েছে তা জানা যায়নি। একই ধরনের অপরাধে চীনে এ পর্যন্ত যে ৭০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে কং তাদের অন্যতম। জাল ভ্যাকসিনের মূলোৎপাটনে বেইজিংয়ের প্রতিশ্রুতির পর ২০টি মামলায় এ ৭০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এ মামলাগুলোর বেশিরভাগই গত বছরের হলেও চলতি সপ্তাহে এগুলোর সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে। 

আদালতের নথি অনুযায়ী, কং ও তার দল গত বছরের আগস্ট থেকে স্যালাইনের দ্রবণ ও পানি সিরিঞ্জে ভরে সেগুলোকে কভিড-১৯ ভ্যাকসিন হিসেবে বিক্রি করে ২৭ লাখ ৮০ হাজার ডলার লাভ করেছে। তাদের জাল টিকার ৬০০টি ডোজের একটি ব্যাচ গত বছরের নভেম্বরে বিদেশে পাচারের আগে হংকংয়ে পাঠানো হয়েছিল। ‘সত্যিকারের উৎপাদকদের’ কাছ থেকে ‘অভ্যন্তরীণ চ্যানেলে’ সংগ্রহ করা

হয়েছে এমন দাবি করে ওই টিকাগুলো বিক্রি করা হয়। অন্য মামলাগুলোতে হাসপাতালগুলোতে বেশি দামে ভুয়া টিকা বিক্রি, নিজস্ব টিকাদান কর্মসূচি ও ‘গ্রাম্য চিকিৎসকদের’ মাধ্যমে বাড়ি-গাড়িতে লোকজনকে জাল টিকা দেওয়ার অভিযোগও পাওয়া গেছে। এ ধরনের প্রতারণা বন্ধে পুলিশকে সহায়তা করতে আঞ্চলিক সংস্থাগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে চীনের সুপ্রিম পিপলস প্রকিউরেটোরেট। দেশটির কর্মকর্তারা গত ১২ ফেব্রুয়ারি নতুন চান্দ্র বর্ষ শুরুর আগেই ১০ কোটি লোককে কভিড-১৯ টিকা দেওয়ার আশা করলেও শেষ পর্যন্ত মাত্র ৪ কোটি লোককে প্রাণঘাতী ভাইরাসের প্রতিষেধক দিতে পেরেছেন। এশিয়ার শীর্ষ অর্থনীতির এ দেশটি অবশ্য কঠোর লকডাউন, ব্যাপক শনাক্তকরণ পরীক্ষা এবং আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসাদের চিহ্নিত করার মাধ্যমে মহামারী অনেকখানি নিয়ন্ত্রণেই রেখেছে।

এই বিভাগের আরও খবর