শুক্রবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২২ ০০:০০ টা
অষ্টম কলাম

জীবন্ত সাপ ব্যাঙ বিচ্ছু খান আকরাম

পাবনা প্রতিনিধি

জীবন্ত সাপ ব্যাঙ বিচ্ছু খান আকরাম

ভাইরাল হওয়ার নেশায় জীবন্ত সাপ, কেঁচো, বিচ্ছু, ব্যাঙসহ বিভিন্ন প্রাণী ও কীটপতঙ্গ খেয়ে আলোচনায় এসেছেন পাবনার ভাঁড়ারা ইউনিয়নের আকরাম প্রামাণিক। বিশ্বময় পরিচিতি পাওয়ার আশায় নিয়মিত এসব খেয়ে দেখান আকরাম। এমন কা কে পরিবেশ ও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর উল্লেখ করে আকরামের মানসিক সুস্থতা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন স্থানীয়রা। স্থানীয়রা জানান, আকরাম গাছ থেকে ছিঁড়ে খান যেকোনো পাতা। খান কাঁচা মাছ। জীবন্ত ধরে খান তেলাপোকা, সাপ, বিচ্ছু, কাঁকড়া, ইঁদুর, ব্যাঙ। বেশ কিছুদিন ধরে এমন কান্ড করছেন পাবনা সদর উপজেলার ভাঁড়ারা ইউনিয়নের আকরাম। প্রায়ই আয়োজন করে গ্রামের দর্শনার্থীদের এসব খেয়ে দেখাচ্ছেন তিনি। এক সময় কাঠমিস্ত্রির কাজ করতেন আকরাম। ভাইরাল হয়ে আলোচনায় আসতে এখন সে কাজ ছেড়ে নিয়মিত পোকামাকড় খাচ্ছেন। আকরাম আলী জানান, ২০০২ সালে টিভিতে এক ব্যক্তির পোকামাকড় খাওয়া দেখে প্রথমবারের মতো কাঁচা কাঠের পোকা খান। এরপর একে একে কাঁচা মাছ, মাংস, কেঁচো, ইঁদুর সবকিছুই খেতে শুরু করেন।

এসব খাওয়াকে বিশেষ যোগ্যতাও মনে করেন তিনি। আকরাম বলেন, ডিসকভারি চ্যানেলের মতো জ্যান্ত পোকামাকড় খেতে পারেন বলে সবার কাছে এখন তিনি ‘ডিসকভারি আকরাম’ নামে পরিচিত। বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছেন তিনি। তাঁর স্ত্রী মুর্শিদা খাতুন বলেন, ২০-২২ বছর আগে তাঁকে এই নেশায় ধরে। তিনি পোকামাকড় খাওয়া চ্যানেল দেখে এটা অভ্যাস করতে থাকেন। ভাঁড়ারা ইউপি চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ খান বলেন, কাঁচা মাছ-মাংস খাওয়া অস্বাস্থ্যকর, বিষাক্ত প্রাণী , কীট পতঙ্গ স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতির কারণ। তার দ্রুত মানসিক চিকিৎসা করা দরকার। পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. সালেহ মোহাম্মদ আলী বলেন, ভাইরাল হওয়ার জন্য আকরাম যা করছেন তা স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

সর্বশেষ খবর