শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ১৭:১০
আপডেট : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ১৯:২৩

আজ প্রতিমা বিসর্জনে শেষ হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব

নাজমুল হুদা, সাভার

আজ প্রতিমা বিসর্জনে শেষ হচ্ছে শারদীয় দুর্গোৎসব

অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে শুভ শক্তির বিজয়ে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে আজ সোমবার শেষ হচ্ছে হিন্দু ধর্মের সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপূজা। বাংলা পঞ্জিকা অনুসারে আজই শেষ হচ্ছে শারদীয় দুর্গাপূজার যাবতীয় ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান। গত ২২ অক্টোবর মহালয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হয় দেবীপক্ষ। এরপর একে একে ষষ্ঠী থেকে দশমী, সবগুলো তিথিতেই রাজধানীর পূজামণ্ডগুলো ছিল পূজারিদের বিনম্র প্রার্থনা আর নানান আনুষ্ঠানিকতায় পূর্ণ। 

সোমবার দশমীর দিন সকাল ৭টায় পূজা শুরু হয়ে শেষ হয় ৮টা ৫১ মিনিটের মধ্যে। দশমীর ভোরে রাজধানীর মণ্ডপগুলোয় ছিল বিদায়ের বিষণ্ণ আবহ। সকালে দেবী অর্চনা শেষে বিভিন্ন মন্দিরে সিঁদুর খেলা ও আরতি নৃত্যে মেতে ওঠেন ভক্তরা। আয়োজনের অংশ হিসেবে হিন্দু সধবা নারীরা দেবীপ্রতিমাকে সিঁদুর পরিয়ে দেন। তারপর নিজেরা একে অন্যকে সিঁদুর পরান। একইসঙ্গে চলে মিষ্টিমুখ করানো, ছবি তোলা ও ঢাকের তালে তালে নাচ-গান। নানান বয়সী সনাতনীদের আনন্দ উৎসবে মন্দির প্রাঙ্গণ মুখর হয়ে ওঠে।

ঢাকা জেলা পুলিশের নির্দেশনা ও পূজা উদযাপন কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী করোনার কারণে এবার বিকাল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৭টার মধ্যে মা বিসর্জনের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘটবে শারদীয় দুর্গোৎসবের। 

এ বিষয়ে মহানগর সর্বজনীন পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক বরুন ভূমিক নয়ন বলেন, এবার করোনার মধ্যে পূজা অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হচ্ছে। কোথাও বড় ধরনের কোনো অঘটনের খবর পাওয়া যায়নি। বিকালে প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে এই আয়োজন শেষ হবে। প্রতিমা বিসর্জনের সবগুলো রুটেই পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকছে বলে জানান তিনি। সবকিছু শান্তিপূর্ণভাবেই শেষ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এদিকে গতরাতে নবমীর শেষ সময়েও সাভার ও আশুলিয়ার মণ্ডপগুলোয় ব্যাপক লোকসমাগম ঘটে। মন্দিরগুলোতে নানা আয়োজনের পাশাপাশি পাড়ামহল্লাগুলোয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজনও চোখে পড়েছে। মধ্যরাত পর্যন্ত বিভিন্ন মণ্ডপে কর্মযজ্ঞ ছিল চোখে পড়ার মতো। সেইসঙ্গে পূজামণ্ডপ ঘিরে আয়োজিত মেলায়ও ছিল ধর্মবর্ণ নির্বিশেষ নানা বয়সী মানুষের ভিড়।

সর্বজনীন পূজা কমিটি জানিয়েছে, এবার সারা বাংলাদেশে ৩০ হাজার ২৫৮টি পূজা মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে, যা গত বছরের তুলনায় ৮৬৩টি বেশি। এর মধ্যে ঢাকা মহানগরে মণ্ডপের সংখ্যা ২৩৪টি। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ২২৯টি।

এদিকে বিজয়া দশমীকে ঘিরে রাজধানীর পাশে সাভার-আশুলিয়ার ও ধামরাইয়ে নিরাপত্তা জোরদার রাখা হয়েছে। পূজামণ্ডপসহ বিভিন্ন মোড়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/জুনাইদ আহমেদ

 

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর