Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ অক্টোবর, ২০১৯ ০২:০৮
আপডেট : ২২ অক্টোবর, ২০১৯ ০৯:৪৫

তোফায়েল ভাই অভিবাদন

পীর হাবিবুর রহমান

তোফায়েল ভাই অভিবাদন
তোফায়েল আহমেদ ও পীর হাবিবুর রহমান

তোফায়েল ভাই শুভ জন্মদিন, অনেক অনেক বছর বেঁচে থাকুন আপনি। ৭৭ স্পর্শ করলেও আপনি কর্মে গতিতে ২৭! আমাদের পরম শ্রদ্ধার ভালোবাসার মানুষ আপনি, আপনি আমাদের নেতা, আপনি আমার ভাই। আপনিই সেই মহান স্বাধীনতা সংগ্রামী, ইতিহাসের এক উজ্জ্বল বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের জীবন্ত কিংবদন্তি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পুত্র স্নেহ লাভ করা এক কৃতজ্ঞ ভাগ্যবান রাজনীতিবিদ আপনি। ইতিহাসের সন্তান, ইতিহাসের স্রষ্টা।

তোফায়েল ভাই, আপনি মানেইতো সেই মহান উত্তাল ৬৯, যার অঙ্গুলি হেলনে চলছিলো পূর্ববাংলার শাসন! আপনিই মহান মুজিবের স্বাধীনতা আন্দোলনের সেই বাঁকের নায়ক। বাঙালি জাতিকে জাগিয়ে ডাকসু ভিপির মর্যাদাকে, ছাত্ররাজনীতির ইতিহাসকে নিয়ে গিয়েছিলেন উচ্চতায়! মনে পড়ে সেই গণঅভ্যুত্থানেই কারাগার ভেঙে জাতির মহানায়ক ফাঁসির মঞ্চ থেকে ফিরেছিলেন, বঙ্গবন্ধু উপাধি নিয়ে হয়ে ওঠেছিলেন বাঙালির একক নেতা! লৌহমানব আইয়ুব খানের পতন হয়েছিল।

তোফায়েল ভাই, কী প্রখর মেধা স্মৃতিশক্তিই না আপনার, যেন ইতিহাসের জীবন্ত এন সাইক্লোপিডিয়া। কতবার কত শাসকের কারাগারে রাত দিন একা যন্ত্রণায় কেটেছে আপনার। পরিবার-পরিজনসহ বিশ্বাসঘাতক খুনিরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পর আপনাকে তারা ধরে নিয়ে গিয়ে, চোখ বেঁধে কি নির্দয়ভাবে পিঠিয়েছে!

খুনিরা যেখানে জাতির পিতাকে শিশু সন্তানসহ হত্যা করে উল্লাস করেছে, সেখানে মুজিব বাহিনীর অন্যতম প্রধান স্বাধীনতা সংগ্রামী তোফায়েলকে শারীরিক-মানসিক বর্বর অত্যাচার এমনকি!! তবে আপনার বড় অর্জন জীবনের এত এত কারাদহন, এতো এতো জেল নির্যাতন- তবু আপনি মাথা নত করেননি।

এদেশের কত স্বাধীনতা সংগ্রামী পথ হারিয়েছেন, কতো জননায়ক চিরনিদ্রা নিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার মূলধারায় এখনো আপনিই এক জীবন্ত তরতাজা ইতিহাস।

আল্লাহর কাছে শুকরিয়া, আপনার আয়ু বাড়িয়ে দিন মানুষের খেদমতের জন্য। ইতিহাসে তো আপনি অমর। আমাদের অগ্রজ-অনুজের কত ঘটনাবহুল স্মৃতিময় জীবন, আপনার জন্মদিনে একজন জাতীয় নেতা ও বীরকে আমার হৃদয় নিসৃত অভিবাদন।আল্লাহ আপনার সহায় হোন।

আপনি একজন মাতৃভক্ত মানুষই নন, একজন ভদ্র মর্যাদাবান ব্যক্তি। যিনি প্রতিনিয়ত মানুষকে সম্মান করে বড় হয়েছেন। কত দেশ ঘুরেছেন, কত জগৎ বিখ্যাত মানুষের সান্নিধ্য লাভ করেছেন। এদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে সংসদীয় রাজনীতির ইতিহাসে আপনি মানুষের অন্তরেই থাকবেন। আপনার তুলনা আপনি নিজেই। আপনিই আমাদের ইতিহাসের এক বিশাল ক্যানভাস।

লেখক : নির্বাহী সম্পাদক, বাংলাদেশ প্রতিদিন

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য