শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ১১:৩৮

নিউইয়র্কে করোনায় বিপর্যস্ত প্রবাসীদের মাঝে চেক বিতরণ

যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি:

নিউইয়র্কে করোনায় বিপর্যস্ত প্রবাসীদের মাঝে চেক বিতরণ

নিউইয়র্ক সিটির জ্যাকসন হাইটসে কাগজপত্রহীন এবং নবাগত অভিবাসীদের মাঝে (যারা স্টিমুলাস চেক ও বেকার ভাতা পাননি) চেক বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায়  ‘আমাদের সাপোর্ট নেটওয়ার্ক’ ও এনওয়াইমিউস’ নামক দুটি সংস্থা চেক বিতরণ করে।

‘আমাদের সাপোর্ট নেটওয়ার্ক’র প্রধান সমন্বয়কারি আশিক মাহমুদের সঞ্চালনায় ‘এনওয়াইমিউস’ এর প্রেসিডেন্ট মীর মাসুম আলী উদ্বোধনী বক্তব্যে নেতৃবৃন্দকে কমিউনিটির পাশে আরো বেশি করে দাঁড়ানোর আহবান জানান। 

এনওয়াইমিউসের পরিচালক শাহানা মাসুম বলেন, এই পেন্ডামিকের সময় ‘আমাদের সাপোর্ট নেটওয়াক’ ও এনওয়াইমিউস যৌথভাবে খাদ্য, চিকিৎসা সামগ্রী ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য-সামগ্রী বিতরণের পাশাপাশি প্রায় নগদ ৮০ হাজার ডলার বিতরণ করেছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল তোফায়েল আহমেদ (অব:) বলেন, নিউইয়র্ক ছিল এক সময়ে মৃত্যুর মিছিলে, বিশ্ববাসীর নজর ছিল নিউইয়র্ক সিটির দিকে; এরকম পরিস্থিতিতেও আপনারা যারা কমিউনিটির সেবায় নিয়োজিত ছিলেন বা এখনও রয়েছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। 

তিনি আরও বলেন, এত ভয়ংকর মহামারী এর আগে কখনো আমরা দেখিনি এবং ভবিষ্যতেও আর দেখতে চাই না। যদিও এই মহামারীর সময় আমরা তিন ধরনের মানুষ দেখতে পেয়েছি- ১.যারা মানুষের কল্যাণে নিয়োজিত থেকে নিজের সবটুকু উজাড় করে দিয়েছেন। আমাদেরকে ছেড়ে যারা চলে গেছেন সেই মহান মানুষদের আমরা শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করব; ২. যারা নিজেদেরকে বাঁচানোর জন্য ঘরে ঢুকে গেছেন এবং ৩. ওই সমস্ত মানুষ নামের কলংক যারা সাহায্যের নামে চুরি করেছেন, প্রতারণা করেছেন, দুই নম্বরী করে অতিরিক্ত মুনাফা খেয়েছেন-এদের প্রতি শুধু ঘৃণা এবং ধিক্কার। এই পেন্ডামিকে বাংলাদেশে আমি ব্যক্তিগতভাবে প্রায় দুই হাজার পরিবারের দুই মাসের খাবারের ব্যবস্থাসহ প্রায় ৪০ জন ছাত্রকে বৃত্তির ব্যবস্থা করেছি। আমাদের সাপোর্ট নেটওয়ার্ক এর কার্যক্রম বাংলাদেশে থাকায় তা অবজার্ভ করার সুযোগ হয়েছে। এখন নিউইয়র্কে আপনাদের সাথে মানবতার সেবায় জনকল্যাণমূলক কাজে নিজেকে সামিল করতে চাই। 

তিনি আরো বলেন, অনুদান গ্রহীতার ছবি যেনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার না করা হয়। 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রবাসী বরিশাল বিভাগীয় কল্যাণ সমিতির আহবায়ক মো:শাহ আলম বলেন, সাপোর্ট নেটওয়ার্কের সদস্যদের মত কমিউনিটির অন্য নেতৃবৃন্দও যদি এভাবে কমিউনিটির সেবায় এগিয়ে আসে তাহলে নিউইয়র্ক সিটি বাংলাদেশী কমিউনিটির একটি শক্তিশালী ঘাঁটিতে রুপান্তরিত হবে। 

‘আমাদের সাপোর্ট নেটওয়ার্ক’র ফাউন্ডার মেম্বারদের মধ্যে মোশারফ হোসেন সবুজ বলেন, সকলের সহযোগিতা পেলে এই সংস্থাটি কমিউনিটির জন্য ভবিষ্যতে আরো বেশী কাজ করতে পারবে। 

ফাউন্ডার মেম্বার রুহুল  আমিন নাসির সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে ভবিষ্যতে আরো ভালো উদ্যোগ নেয়ার আশা ব্যক্ত করেন। নাসির জানান, মাথাপিছু ৫০০ ডলারের চেক দেয়া হলো। খুবই নাজুক অবস্থায় রয়েছেন এমন কাগজপত্রহীন অভিবাসীরা যোগাযোগ করলে পরবর্তীতেও চেক প্রদান করা হবে। 

তিনি জানান, করোনা মহামারিকালে ব্রঙ্কস, কুইন্সের বিভিন্ন স্থানে আমরা ত্রাণ তৎপরতা চালিয়েছি। এখনও অসহায় প্রবাসীদের মধ্যে মাস্ক ও গ্লোভস বিতরণ করা হচ্ছে। 

প্রতিষ্ঠাতা সদস্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ড: গোলাম মহিউদ্দিন, মো: মহসিন, জাকির হোসেন লিটন, রুবেল গাজী, মিজানুর রহমান স্বপন প্রমূখ।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর