Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:১৪

শিষ্যের কাছে গুরুর হার!

ক্রীড়া প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম থেকে

শিষ্যের কাছে গুরুর হার!

টেস্ট শুরুর আগে বাংলাদেশের কোচ চন্ডিকা হাতুরাসিংহে বলেছিলেন, বাংলাদেশে এখন যে বোলার আছে টেস্টে তাদের ২০ উইকেট নেওয়ার সামর্থ্য নেই। কিন্তু সাকিব আল হাসান বলেছিলেন, এখনো ২০ উইকেট নেওয়ার ক্ষমতা বাংলাদেশের বোলারদের আছে। তবে পেসার যদি স্পিনারদের সহযোগিতা করে তাহলে প্রতিপক্ষকে দুবার অলআউট করা সম্ভব। গুরু চন্ডিকার কথার সঙ্গে একমত ছিলেন না শিষ্য সাকিব। গতকাল ইংল্যান্ডকে দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট করে যেন গুরুকে হারিয়ে দিলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার! অর্থাৎ বোলাররা দুর্দান্ত পারফর্ম করে কোচের কথা মিথ্যা প্রমাণ করেছেন।

ইংল্যান্ডের ২০ উইকেট নিয়ে পেসারদের তেমন সহায়তাও নিতে হয়নি। নিজের কথা প্রতিষ্ঠা করতে নিজেই সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন সাকিব। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার নিজেই নিয়েছেন ৭ উইকেট। প্রথম ইনিংসে দুটি, দ্বিতীয় ইনিংসে ৫টি। নবাগত মেহেদী হাসান মিরাজ নিয়েছেন ৭টি এবং তাইজুল ইসলাম নিয়েছেন ৪ উইকেট। ইংল্যান্ডের ২০ উইকেটের মধ্যে ১৮ উইকেটই নিয়েছেন স্পিনাররা। বাকি দুই উইকেটের মধ্যে একটি রান আউট, আর একটি মাত্র উইকেট নিয়েছেন পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি।

এর ৯৩ টেস্টে মাত্র আটবার প্রতিপক্ষকে দুই ইনিংসে অলআউট করতে পেরেছিল বাংলাদেশ। সেটাও বড় কোনো দলের বিরুদ্ধে নয়। টাইগাররা ছয়বার আউট করেছিল জিম্বাবুয়েকে। আর দুইবার অলআউট করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। অবশ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের সে দলটি ছিল খর্ব শক্তির। ২০০৯ সালে বাংলাদেশ যখন ওয়েস্ট ইন্ডিজে গিয়েছিল তখন ক্যারিবীয় দলের তারকা ক্রিকেটাররা বোর্ডের সঙ্গে দ্বন্দ্বের কারণে খেলেনি। তবে এবার শক্তিশালী ইংল্যান্ডকেই দুই ইনিংসেই অলআউট করে মুশফিকের বাংলাদেশ। বোলারদের এমন পারফরম্যান্স দেখে ভীষণ খুশি কোচ হাতুরাসিংহে, ‘আমাদের বোলাররা বুঝিয়ে দিয়েছেন তাদের সামর্থ্য আছে। তবে আমরা এজন্য অনেক অনুশীলন করেছি। ইংল্যান্ডের ২০ উইকেট নেওয়ায় আমার খুবই ভালো লাগছে।’


আপনার মন্তব্য