শিরোনাম
রবিবার, ১০ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা

বিশ্বকাপে সবই সম্ভব

ক্রীড়া ডেস্ক

বিশ্বকাপে সবই সম্ভব

পর্তুগালের অধিনায়ক ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

বিশ্বকাপ ফুটবল এখন মাঠে গড়ানোর অপেক্ষায়। প্রস্তুত দলগুলো। শেষ বেলার প্রস্তুতিও সেরে নিচ্ছে। প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে নিজেদের দুর্বল দিকগুলো বের করে দলগুলো। সেসব শুধরে শিরোপা জয়ের টার্গেটে নামার রণকৌশল ঠিক করে নিচ্ছে দলগুলো। ইউরো চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল এবার প্রস্তুত বিশ্বকাপ জেতার। পরশু রাতে আলজেরিয়ার বিপক্ষে নিজেদের সর্বশেষ প্রস্তুতি ম্যাচে ৩-০ গোলে জিতেছে পর্তুগাল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের পর এই প্রথম পর্তুগালের জার্সি গায়ে চড়িয়ে ম্যাচ খেললেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। আলজেরিয়া ম্যাচের আগে রাজধানী লিসবনে ন্যাশনাল কোচেস মিউজিয়ামে আমন্ত্রিত হয়ে বিশ্বকাপে পর্তুগালের সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেছেন। ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের পর এবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্ন দেখছে পর্তুগাল। ইউসেবিওর দেশ পর্তুগালের স্বপ্নের কাণ্ডারি আর কেউ নন, পাঁচবারের বিশ্বসেরা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

বিশ্বকাপে পর্তুগাল কখনই পরাশক্তি হিসেবে নিজেদের প্রমাণ করতে পারেনি। তারপরও ১৯৬৬ ও ২০১০ সালে সেমিফাইনাল খেলেছিল। ২০১৬ সালে সবাইকে বিস্মিত করে, হতবাক করে ইউরো চ্যাম্পিয়ন হয় পর্তুগাল। ইউরো সেরা হতে দলকে নেতৃত্ব দেন রোনালদো। এবার রোনালদোকে ঘিরেই বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখছে দেশটি। দেশটির প্রেসিডেন্ট মার্সেলো রেবেল দে সৌসা বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া দলটিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন ন্যাশনাল কোচেস মিউজিয়ামে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত অভিভূত রোনালদো বলেন, ‘বিশ্বকাপে আমরা ফেবারিট নই। কিন্তু এটা ঠিক, আমরা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়েই রাশিয়া যাব। কারণ, ফুটবলে কোনো কিছুই অসম্ভব নয়।’

বিশ্বকাপে রোনালদোদের গ্রুপটি ‘ডেথ গ্রুপ’ নয় ঠিকই, তবে যথেষ্ট শক্তিশালী। রোনালদোর পর্তুগাল খেলবে ‘বি’ গ্রুপে। রয়েছে ২০১০ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন স্পেন এবং মরক্কো ও ইরান। বিশ্বকাপ শুরু হবে পর্তুগালের আসরে অন্যতম ফেবারিট স্পেনের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। ১৫ জুন সোচিতে রোনালদোর পর্তুগালের প্রতিপক্ষ আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার স্পেন। শুরুতেই কঠিন প্রতিপক্ষ, তাই ম্যাচ বাই ম্যাচ ধরে এগোতে চাইছেন রোনালদো, ‘আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগোতে চাই। প্রথম ম্যাচটাই আমাদের সবচেয়ে কঠিন। তাই বলে ভয় পেলে চলবে না। নিজেদের ওপর আস্থা রাখতে হবে।’  চ্যাম্পিয়ন হতে হলে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, জার্মানি, স্পেন, ফ্রান্স, ইংল্যান্ডের মতো দলগুলোকে পেছনে ফেলতে হবে। এজন্য স্বপ্নও দেখতে হবে বলেন রোনালদো, ‘ফুটবলারদের সব সময় স্বপ্ন দেখা উচিত। বিশ্বাস করি, বিশ্বকাপে আমরা সবাই নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দেব।’ ফ্রান্সে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে আহত হয়ে মাঠের বাইরে চলে এসেছিলেন রোনালদো। কিন্তু তাই বলে বসে ছিলেন না। মাঠের বাইরে বসেই উজ্জীবিত করেছিলেন সতীর্থদের। সে কথা মনে আছে সবার। পর্তুগালের রাষ্ট্রপতির সামনেই রোনালদো বলেন, ‘দুই বছর আগে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে আমাদের মূলমন্ত্র ছিল শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত লড়াই করা। নিজেদের উপর কখনও আস্থা না হারানো। রাশিয়াতেও আমাদের একই লক্ষ্য নিয়ে খেলতে হবে।

মনে রাখতে হবে, আমরা পর্তুগালকে প্রতিনিধিত্ব করছি। দেশের মান সন্মান রাখা আমাদের দায়িত্ব।’

এই রকম আরও টপিক

সর্বশেষ খবর