রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

সুইস গোলরক্ষক সমারের বীরত্বে মুগ্ধ আমি

সুইস গোলরক্ষক  সমারের বীরত্বে মুগ্ধ আমি

আশরাফুল ইসলাম রানা, জাতীয় দলের গোলরক্ষক

হাইভোল্টেজ ম্যাচে একজন গোলরক্ষক এতটা ভালো খেললেন কীভাবে তাতেই আমি বিস্মিত। আত্মঘাতী গোলে স্পেন এগিয়ে গেলেও দ্বিতীয়ার্ধে সমতায় ফেরে সুইজারল্যান্ড। ৭৭ মিনিটে সুইস দলের ফ্রেইলার লালকার্ড পেলে ১০ জনে পরিণত হয় তারা।

 

বড় টুর্নামেন্টে কোয়ার্টার ফাইনাল জেতাটা নিঃসন্দেহে আনন্দের। ইউরো কাপে টাইব্রেকারে জিতে স্পেন বিজয় উৎসব করেছে। সামনে তারা সেমিতে খেলবে। তবে সুইজারল্যান্ডের বিদায়ে কিছুটা হলেও ভেঙে পড়েছি। বাংলাদেশের অধিকাংশ ফুটবলপ্রেমী ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনাকে সমর্থন করে। ইতালি, জার্মানি ও ১৯৯৮ সালে বিশ্বকাপ জেতার পর ফ্রান্সের সমর্থক সংখ্যা একেবারে কম নয়। সুইজারল্যান্ডের কোনো সাপোর্টার খুঁজে পাওয়া যাবে কী না সন্দেহ আছে। তারপরও বলব শুক্রবার রাতে সুইজারল্যান্ডের খেলা ঘিরে আমি কেন অনেকে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তা হারার জন্য নয়,  গোলরক্ষক ইয়ান সমারের বীরত্ব দেখে। একজন গোলরক্ষকের দৃঢ়তায় দল জয় পেয়েছে এ ধরনের উদাহরণ অনেক দেওয়া যাবে। সমারের বীরত্বের পরও তো সুইজারল্যান্ড হেরে গেছে। তবে নায়ক যদি কাউকে বলা যায় সমারকেই বলতে হবে। পুরো বিশ্ব তার পারফরম্যান্সে মুগ্ধ।

হাইভোল্টেজ ম্যাচে একজন গোলরক্ষক এতটা ভালো খেললেন কীভাবে তাতেই আমি বিস্মিত। আত্মঘাতী গোলে স্পেন এগিয়ে গেলেও দ্বিতীয়ার্ধে সমতায় ফেরে সুইজারল্যান্ড। ৭৭ মিনিটে সুইস দলের ফ্রেইলার লালকার্ড পেলে ১০ জনে পরিণত হয় তারা। তবে সমার একাই একশতে পরিণত হয়েছিলেন। এরপর অতিরিক্ত সময় মিলিয়ে বাকি ৪৭ মিনিটে তিনি ৮টি নিশ্চিত গোল রক্ষা করেছেন। দুর্ভাগ্য তার সতীর্থদের টাইব্রেকারের মিসে ইউরো থেকে বিদায় নিতে হয়। আমি নিজেও গোলরক্ষক পজিশনে খেলি। তাই একজন গোলরক্ষকের খেলা দেখে শেখার চেষ্টা করি। তবে সত্যি কথা বলতে কী সমার যা দেখালেন তা আমার কাছে স্বপ্নই মনে হচ্ছে। সত্যিই আমি মুগ্ধ।