শিরোনাম
শনিবার, ৬ জুলাই, ২০২৪ ০০:০০ টা

মার্টিনেজ জাদুতে সেমিতে আর্জেন্টিনা

আসিফ ইকবাল

মার্টিনেজ জাদুতে সেমিতে আর্জেন্টিনা

গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ টাইব্রেকারে আরও একটি পেনাল্টি শট আটকে দিলেন। আর্জেন্টিনার জয়ের পথ তৈরি করলেন তিনি। দলকে তুলে নিলেন সেমিফাইনালে -এএফপি

ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে নায়ক, মহানায়ক সব মার্টিনেজ। ইকুয়েডরের দুই দুটি শটস ঠেকিয়ে দেন। তাতেই বাজিমাত। টাইব্রেকারে জিতে সেমিফাইনালে জায়গা নেয় বর্তমান বিশ্ব ও কোপা আমেরিকা কাপ চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। মার্টিনেজের মহানায়কের দিনে টাইব্রেকারে পেনাল্টি মিস করেন রেকর্ড আটবারের বিশ্বসেরা ফুটবলার মেসি।

আর্জেন্টিনা মানে টাইব্রেকার। টাইব্রেকার মানেই এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। এরপর আর্জেন্টিনার জয়োৎসব। লিওনেল মেসি থাকার পরও আর্জেন্টিনার নায়ক, মহানায়ক মার্টিনেজ। ২০২২ সালে দোহায় বিশ্বকাপের ফাইনালে ফুটবলপ্রেমীরা দেখেছিলেন টাইব্রেকার। দেখেছিলেন মেসির গোল। দেখেছিলেন ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপ্পের হ্যাটট্রিক। কিন্তু সব আড়ালে পড়েছিল মার্টিনেজ জাদুতে। মুগ্ধ চোখে ফুটবল বিশ্ব দেখেছিল মার্টিনেজের ক্যারিশমা। বিশ্বের সেরা গোলরক্ষকের জাদুতে ১৯৮৬ সালের পর পুনরায় বিশ্বকাপ ট্রফি জিতেছিল আর্জেন্টিনা। গতকাল টেক্সাসের এনআরজি স্টেডিয়ামে ফুটবলপ্রেমীরা দেখলেন আরও একবার মার্টিনেজ জাদু। একই সঙ্গে দেখলেন মহানুভবতা! বিশ্বের সবচেয়ে পুরনো ফুটবল টুর্নামেন্ট কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল রেকর্ড ১৫ বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা ও ইকুয়েডর। নির্ধারিত সময় ১-১ গোলে ড্র হয়েছিল। এরপর ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে নায়ক, মহানায়ক সব মার্টিনেজ। ইকুয়েডরের দুই দুটি শটস ঠেকিয়ে দেন। তাতেই বাজিমাত। টাইব্রেকারে জিতে সেমিফাইনালে জায়গা নেয় বর্তমান বিশ্ব ও কোপা আমেরিকা কাপ চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। মার্টিনেজের মহানায়কের দিনে টাইব্রেকারে পেনাল্টি মিস করেন রেকর্ড আটবারের বিশ্বসেরা ফুটবলার মেসি। আর্জেন্টিনা সেমিফাইনাল খেলবে ১০ জুলাই, প্রতিপক্ষ ভেনেজুয়েলা-কানাডা জয়ী দল।

ফুটবলপ্রেমীরা প্রথমে দেখেন মার্টিনেজের ফুটবল জাদু। ম্যাচ শেষে দেখেছেন মহানুভবতা। ম্যাচ হেরে কাঁদছেন ইকুয়েডরের গোলরক্ষক। আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা যখন ম্যাচ জয়ের আনন্দে উৎসব করছেন, তখন মার্টিনেজ দলের সঙ্গে যোগ না দিয়ে হেঁটে হেঁটে ইকুয়েডরের গোলরক্ষকের কাছে আসেন। তখন সতীর্থ একজন সান্ত্বনা দিচ্ছিলেন গোলক্ষককে। মার্টিনেজ বসে পিঠে ভালোবাসার পরশ বুলিয়ে দেন। অথচ টাইব্রেকারে দ্বিতীয় শট আটকে তার ট্র্যাডিশনাল কোমড় দুলানো নাচ নাচেন। এটাই আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক।

দলীয় অধিনায়ক মেসির খেলা নিয়ে সংশয় ছিল। ম্যাচের আগের দিন অনুশীলন করেন বিশ্বচ্যাম্পিয়ন মেসি। কিন্তু কোচ লিওনেল স্কালোনি নিশ্চয়তা দেননি অধিনায়কের খেলার। শুধু জানিয়েছিলেন, অপেক্ষা করবেন ম্যাচের আগে পর্যন্ত। গতকাল মেসি খেলেন এবং জিতে ম্যাচ মাঠ ছাড়েন। কোপার কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে নিয়ে চাকরি ছেড়েছেন ইকুয়েডরের কোচ ফেলিক্স সানচেজ। দেশটি কোপার সেমিফাইনালে খেলেছিল সর্বশেষ ৩১ বছর আগে ১৯৯৩ সালে। এবার কাছাকাছি এসেও পারেনি। তাই চাকরি থেকে সরে দাঁড়ান ফেলিক্স। কোপা আমেরিকার নকআউট পর্বের ম্যাচগুলোর নিয়ম আছে। ম্যাচ অনুষ্ঠিত ৯০ মিনিট। এর বাইরে কোনো অতিরিক্ত সময় নেই। ফল নির্ধারিত হয় সরাসরি টাইব্রেকারে। ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র থাকায় গড়ায় টাইব্রেকারে। টাইব্রেকারে প্রথম শটস নেয় আর্জেন্টিনা এবং প্রথম শট নেন মেসি। কিন্তু তার শটটি ক্রস পিঠে লেগে বাইরে চয়ে যায়। তখন ইকুয়েডরের গোলরক্ষক বিশ্বসেরা ফুটবলার দৌড়ে এসে সান্ত্বনা দেন মেসিকে। ইকুয়েডরের প্রথম দুটি শটস দুই দিকে ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন মার্টিনেজ। এতেই জিতে যায় আর্জেন্টিনা। নির্ধারিত সময়ে ম্যাচে এগিয়েছিল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ৩৫ মিনিটে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দেন লিসান্দ্রো মার্টিনেজ। কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে মাথা ছুঁইয়ে দেন অ্যালেক্সিস ম্যাক অ্যালিস্টার। বল যায় লিসান্দ্রো মার্টিনেজের কাছে। এরপর হেডে উচ্ছ্বাসে ভাসান আলবিসেলেস্তাদের। প্রথমার্ধ শেষ হয় আর্জেন্টিনার গোলে। ৫৯ মিনিটে গোল শোধের সুযোগ পেয়েছিল ইকুয়েডর। আর্জেন্টিনা যখন ১-০ গোলে জয়ের পথে, তখনই সবকিছু পাল্টে যায়। সমতা আনে ইকুয়েডর। ৯০ মিনিটে সমতা আনেন কেভিন রড্রিগেজ। জন ইবোয়ার ক্রসে হেড করেন রড্রিগেজ (১-১) আর্জেন্টিনা অফসাইডের দাবি করলেও রেফারি বাতিল করে দেন। এরপর ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। নায়ক, মহানায়ক হয়ে যান এমিলিয়ানো মার্টিনেজ।

সর্বশেষ খবর