শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০২:৪৪

বিয়ে করলেন অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের দুই নারী ক্রিকেটার!

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ে করলেন অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের দুই নারী ক্রিকেটার!

প্রেম কোনও সীমান্ত মানে না। তা মানে না কোনও লিঙ্গ বা ধর্ম পরিচয়ও। একটি প্রেমের ফলে বদলে গেছে একটি গোটা যুদ্ধ বা মহাকাব্যের চরিত্র। সব সময় সকলে তা যে মানতে পেরেছেন, তা নয়। 

বিরোধিতা করেছেন। তবু, ধ্বংসস্তূপের মধ্যে থেকেই যেমন জন্ম হয় একটি ফুলের কুঁড়ির, মৃত্যু উপত্যকায় যেমন আসতে কখনও ভুল করে না বসন্তের চিরকালীন বাতাস, তেমনই বহু বিদ্বেষ ও বিরোধিতার মধ্যেও ভালোবাসা থেকে যায় একটি অনিবার্য প্রতিবাদ হয়েই। 

ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে যেমন রেষারেষি, ততটা না হলেও, অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের মধ্যেও একটি চিরন্তন আদায়-কাঁচকলায় ব্যাপার রয়েছে। এই দুই দেশের দুই নারী ক্রিকেটারের মধ্যে সম্পর্ক ছিল অনেকদিন ধরেই। সেই সম্পর্কই শেষমেশ বিয়েতে রূপান্তরিত হল। আসলে, জন্ম হলো যেন এক নতুন রূপকথার।

নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার হেইলি জেনসেন আর অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটার নিকোলা হ্যানকক গত সপ্তাহান্তেই বিয়ে করলেন নিজেদের ভালোবাসাকে সাক্ষী রেখে। নারীদের বিগ ব্যাশ লিগের প্রথম দুই পর্বে অল-রাউন্ডার হেইলি জেনসেন খেলেছেন 'মেলবোর্ন স্টার্স'-এর হয়ে। এবার এই লিগের তৃতীয় পর্বে তিনি খেলছেন 'মেলবোর্ন রেনেগেডস'-এর হয়ে। 

অন্যদিকে, নিকোলা হ্যানকক অস্ট্রেলিয়ান টি-টোয়েন্টি লিগে এখনও খেলে চলেছেন 'টিম গ্রিন'-এর হয়ে। টুইটারে এই নব-দম্পতির ছবি শেয়ার করল 'মেলবোর্ন স্টার্স'। ছবিটি শেয়ার করার পরই, তাদের দু'জনের উদ্দেশে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসতে থাকে শুভেচ্ছার বার্তা। আনন্দের বার্তা।

২০১৭-১৮ মৌসুমে ভিক্টোরিয়া উওমেনস প্রিমিয়ার ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় সেরা খেলোয়াড় হিসেবে 'উমা পেইজলি' পদক জেতেন হেইলি জেনসেন। ২০১৪ সালে হোয়াইট ফার্নসদের হয়ে নিজের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটান তিনি। এবং, মেলবোর্ন ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে প্রথম নারী ক্রিকেটার হিসাবে শতরান করার বিরল নজিরও একমাত্র তার দখলে।

অন্যদিকে, মেলবোর্ন স্টার্সের হয়ে নারীদের বিগ ব্যাশ লিগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেটধারী হলেন নিকোলা হ্যানকক। ১৪ ম্যাচে ১৩'টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। চমকহীন দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপ দলে অভিজ্ঞতাই এগিয়ে।

প্রসঙ্গত, নিউজিল্যান্ডে ২০১৩ সালের ১৯ অগস্ট সমলিঙ্গে বিবাহ আইনি স্বীকৃতি পায়। সবুজ ঘাস, সুইং বল, মাঠচেরা ড্রাইভের জীবনটিকে সঙ্গে করেই এই দুজন হাত মেলালেন বাউন্ডারির ওপারের জীবনটিতেও। যেখানে আঙুল তোলার জন্য কোনও আম্পায়ার দাঁড়িয়ে নেই। সূত্র: এনডিটিভি

বিডি প্রতিদিন/২০ এপ্রিল ২০১৯/আরাফাত


আপনার মন্তব্য